বরের বয়স ২৩, কনের ৩৮, পছন্দের ছেলেকে বিয়ে করতে ৫ কোটি টাকার যৌ’তুক দিলেন মহিলা!

যদি আপনাকে কেউ বলে থাকে যে, টাকা জীবনের সবচেয়ে গু’রুত্বপূর্ণ জিনিস নয়, যেহেতু টাকা দিয়ে ভালোবাসা, সুখ বা স্নেহ কেনা যায় না – তাহলে আপনি তাকে এই অদ্ভুত ধ’রণের বিয়ের কথাটি বলতে ভুলবেন না, যেটি স’ম্প্রতি চীনে ঘ’টেছে।

কয়েকমাস আগে এক নববিবাহিত দম্পতি ইন্টারনেটে আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে উঠেছিলেন যখন তারা চিরাচরিত নিয়মকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে অদ্ভুত দ’র্শন বিয়েটা সেরেছিলেন।

কনের বয়স ছিল ৩৮ বছর এবং সে এক সন্তানের মা আর বরের বয়স মোটে ২৩ বছর, যার মায়ের বয়স কিনা তার স্ত্রীর থেকে মাত্র এক বছর বেশি ছিল।

আজব এই বিয়ের ঘ’টনাটি ঘ’টেছিল এই বছরেরই ১০ই জানুয়ারি, চীনের হাইনান প্রদেশে এবং নিমেষে তাদের বিয়ের ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায় এবং নানারকম বিত’র্কেরও সৃষ্টি হয়।

৩৮ বছর বয়সী ওই মহিলা ২৩ বছর বয়সী যুবকের প্রেমে প’ড়েন এবং তাদের মধ্যে শা’রীরিক স’ম্পর্কও তৈরি হয়। এরপর ওই মহিলা গর্ভবতী হয়ে পড়লে তিনি যুবককে বিয়ের করার প্রস্তাব দেন।

কিন্তু যুবকের পরিবার এই বিয়ের জন্য মোটেই রাজি ছিলেন না, যেহেতু ওই মহিলার সাথে যুবকের বয়সের তফাৎ ১৫ বছরের। উপরন্তু ওই মহিলা আগে থেকেই এক ১৪ বছর বয়সী সন্তানের মা ছিলেন।

ওই মহিলা একজন বিজনেস ওম্যান ছিলেন, তার রিয়েল এস্টেটের বিজনেস ছিল। মহিলার বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পর তিনি যুবকের পরিবারকে ৬৬০,০০০ ইয়ুআন (ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ৭৪ লাখ টাক) দেওয়ার কথা বলেন, সাথে যুবককে একটি ফেরারি স্পোর্টস কারও উপহার দেন। অর্থাৎ মোট খরচ হয় ৫,০০০,০০০ ইয়ুআন (ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৫.৫৪ কোটি টাকা)। এরপরই যুবকের পরিবার বিয়ের জন্য রাজি হয়ে যায়।

একটি অত্যধিক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। বর-কনে একটি লাল ফেরারি চে’পে বিয়ের মন্ডপে আসেন। কনের গায়ে ছিল গা ভর্তি সোনার গয়না ও অন্যান্য দামি গয়না।

চীনের নেটিজেনরা নবদম্পতিকে অভিনন্দন জা’নান সোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকে অবশ্য তীর্যক মন্তব্যও করেন যে, টাকা দিয়ে সবকিছু কেনা যায় আবারও প্রমাণিত হল। অনেকে বলেন ছেলেটি বিয়ে করেছে মহিলার টাকাকে ভালোবেসে, মহিলাটিকে ভালোবেসে নয়।

এইসব বিত’র্কের মধ্যে কিছু মানুষ বলেন, যদি কোনো ৩৮ বছর বয়সী ডিভোর্সি পুরুষ কোনো ২৩ বছর বয়সী মেয়েকে বিয়ে করতো তাহলে এত বিত’র্কের সৃষ্টি হতো না, তাহলে কোনো মেয়ে এই কাজ করলে তাকে অপমানিত হতে হবে কেন।

নিচের ভিডিওতে দে’খতে পাবেন, বিয়ের পর ওই নবদম্পতি বেশ গর্বিত এবং হাসিখুশিই রয়েছে। মহিলা যদিও আগে থেকেই গর্ভবতী ছিলেন তবে বিয়ের সাদা পোশাকে তাকে অসাধারণ লাগছে, সাথে রয়েছে হ্যান্ডসাম বরের মুখের মিস্টি হাসি। খুশির মূহুর্তে স্ত্রীর জন্য একটি গানও করেন স্বামী এবং তাতে লজ্জা পেয়ে হেসে ফে’লেন নববধূ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *