হাসপাতালের সামনে পড়ে আছে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত ব্যক্তির লাশ, পালিয়েছে স্বজনরা

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে করোনাভাইরাসের লক্ষণ নিয়ে শনিবার বিকালে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিহতের লাশ হাসপাতালের সামনেই পড়ে রয়েছে বলে স্থানীয়রা জানান।

স্থানীয়রা জানায়, কয়েকদিন আগে নরোত্তম সরকার ঢাকায় তার ছেলের বাসা থেকে গ্রামের বাড়িতে আসেন। শুক্রবার মোহনগঞ্জ পৌরশহরের রাউতপাড়ায় তার ভাগ্নের বাসা অবস্থান করেন। কদিন ধরেই তিনি সর্দি-জ্বরে ভুগছিলেন।নরোত্তম সরকারের (৫৫) বাড়ি মোহনগঞ্জ উপজেলার মাঘান ইউনিয়নের মল্লিকপুর গ্রামে।

শনিবার করোনার লক্ষণ নিয়ে তার ভাগ্নে বৌ মিতু রানী তাকে শনিবার মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে ময়মনসিংহ রেফার্ড করেন। এসময় করোনা সন্দেহে তার স্বজনরা ওই ব্যক্তিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে রেখে পালিয়ে যায়।

মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. সুবীর সরকার জানান, রোগীর অবস্থা খারাপ দেখে তাকে ময়মনসিংহ নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। পরে বিকালে হাসপাতালের সামনেই তিনি মারা যান। তার শরীরে করোনার উপসর্গ আছে কিনা তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। নিহতের লাশ হাসপাতালেই রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *