‘ডাল-রুটি খাওয়ার পয়সাও ছিল না’

আদালত সিরিয়ালের জনপ্রিয় মুখ ‘কেডি পাঠক’ অর্থাৎ রনিত রায়। ‘সুপারহিট’ ছবি করেও একটা সময়ে বেকার ছিলেন তিনি।

এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, এমন সময়ও গেছে যখন ডাল-রুটি খেয়ে বেঁচে থাকাই যেন প্রায় কঠিন হয়ে পড়েছিল। কিন্তু তিনি হাল ছাড়িনি। অপেক্ষা করে গেছি আবার সুযোগ আসার। ছবিতে যখন সুযোগ কমেছে, সিরিয়ালের দিকে সরে গিয়েছি।

১৯৯২ সালে ‘জান তেরে নাম’ ছবি দিয়ে হিন্দি সিনেমায় অভিষেক হয় রনিত রায়ের। পরবর্তীতে তামিল, তেলেগু, বাংলা সিনেমায় কাজ করেছেন তিনি। তবে তিনি তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছেন ‘আদালত’ ধারাবাহিকে কেডি পাঠক হিসেবে। বাংলাদেশেও তার রয়েছে বেশ জনপ্রিয়তা।

ভারতীয় গণমাধ্যম এবিপির খবরে বলা হয়, বর্তমানে ভারতীয় ধারাবাহিকে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেতাদের একজন তিনি। তবে একসময় সুপারহিট ছবি উপহার দেওয়ার পরও ৬ মাস কোনো কাজ পাননি ‘আদালত’ খ্যাত এই অভিনেতা।

এ নিয়ে রনিত জানান, ‘জান তেরে নাম’ সুপার হিট হয়। আজকালকার দিনের ১০০ কোটি টাকার ছবি। প্রথম ছবি এই স্তরের ছিল। তারপর আচমকাই ৬ মাস কোনো কাজ পাইনি। বেশ কিছু ছোটখাটো কাজ করেছিলাম সেই সময়। প্রায় ৩ বছর ধরে সেগুলোই করে গিয়েছি। ৯৬ সাল পর্যন্ত।’

এই অভিনেতা আরও বলেন, আমি বাড়িতে বসে ছিলাম প্রায় বছর চারেক। একটা ছোট গাড়ি ছিল। কিন্তু পেট্রোল কেনার টাকা ছিল না। বাড়ি পর্যন্ত হেঁটে যেতাম। সেখানে গিয়েই খেতাম। সিলভার জুবিলি ফিল্মে কাজ করার পরও আমার কাছে কোনো টাকা ছিল না। এক সময়ে ‘উড়ান’, ‘আগলি’-র মতো ছবিতে কাজ করে প্রশংসা পেয়েছেন ফিল্ম-বোদ্ধাদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *