রেললাইনে ট্রেনের বদলে ছুটছে সাইকেল, ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই ভাইরাল

রেললাইনের ইস্পাতের উপর মানুষের দাঁড়িয়ে থাকা বা হেঁটে চলাটাই কষ্টকর। আর এর উপর সাইকেল চালানো! এমন কল্পনাও হয়তো কেউ করে উঠতে পারেন না। কিন্তু এই অকল্পনীয় বিষয়টিকে বাস্তবায়িত করেছেন এক রেলকর্মী। এর জন্য তিনি সাইকেলটিকে অভিনব রূপ দিয়েছেন। আর এই অভিনব আবিষ্কারের মাধ্যমে তরতরিয়ে লাইনের উপর ছুটছে সাইকেল।
আজমেড়ের রেলের এক সহকারি ইঞ্জিনিয়ার এমন অভিনব আবিষ্কার করেছেন। যার পরেই রেললাইনে ট্র্যাকমানরা অতি সহজেই লাইনের উপর দিয়ে সাইকেল চালিয়ে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যাতায়াত করছেন এবং লাইন চেকিং করছেন। সাইকেলকে এই অভিনব রূপ দেওয়ার জন্য রেলের ওই সহকারী ইঞ্জিনিয়ার মাত্র কয়েকটি ধাতব রড ব্যবহার করে এমনটা করতে সক্ষম হয়েছেন।
সাইকেলের ভারসাম্য রাখার জন্য ওই সহকারী ইঞ্জিনিয়ার সাইকেলের সামনের চাকায় দু’টি রডের মাধ্যমে একটি ছোট্ট চাকা লাগিয়েছেন। যে চাকাটি লাইনের সাথে খাপে খাপে বসে যাওয়ার ক্ষমতা রাখে।
এর পাশাপাশি সামনের এবং পিছনের চাকার সাথে দুটি বড় রড লাগিয়ে অপর প্রান্তের লাইনের সাথে ভারসাম্য রাখার জন্যে আরও একটি চাকা লাগানো হয়েছে। আর কোন কিছু ব্যবহার করা হয়নি। আর এর পরেই ওই সাইকেল তরতরিয়ে ছুটছে লাইনের উপর।
বর্তমানে দেশজুড়ে লকডাউন চলার কারণে ট্রেন পরিষেবা বন্ধ থাকায় এই সাইকেল ব্যবহার করেই রেলের ট্র্যাকম্যানরা এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় ছুটে যাচ্ছেন খুব অল্পসময়ের মধ্যেই। তবে এই অভিনব আবিষ্কার আগামীদিনে রেলের ট্র্যাক চেকিং ইত্যাদির ক্ষেত্রে বিপুল সহযোগিতা করবে বলে মনে করছেন রেলের ইঞ্জিনিয়াররা।
অভিনব এই সাইকেলের গতিবেগ সম্পর্কে রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, এই সাইকেল ঘন্টায় কমপক্ষে ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার গতিবেগে লাইনের উপর দিয়ে ছোটার ক্ষমতা রাখে। এর ওজন সর্বোচ্চ ২০ কেজি। আর এটি বানাতে খরচ পড়েছে ৫০০০ টাকার কম।
এই সাইকেলের সুবিধার ক্ষেত্রে রেলের তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে, রেল লাইন ইনস্পেকশন করার জন্য এখনো ট্রলি ব্যবহার করা হয় বহু জায়গায়। আর এই ট্রলি ঠেলতে দুজন লোক লাগে। আর এবার সেই জায়গায় অনায়াসে এই সাইকেলে দুজন এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় চলে যেতে পারবেন। তবে এই সাইকেলের ব্যবহার কেবলমাত্র রেল কর্মীদের জন্যই। সাধারণ কেউ এই সাইকেল নিয়ে রেললাইনে উঠতে পারবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *