১৩ বছর বয়সেই গ’র্ভবতী! সন্তানের জ’ন্ম দিয়ে মায়ের দাবি, শিশুর বাবার বয়স ১০

১৬ অগাস্ট একটি ফুটফুটে কন্যা সন্তানের জ’ন্ম দিয়েছে রাশিয়ার মেয়ে দারিয়া দু’সনিশিনিকোভা। তাঁর বয়স শুনলে আপনিও অবাক হবেন। মাত্র ১৩ বছর বয়সে সে গ’র্ভবতী হয়েছিল। ১৪ বছর বয়সেই মা হয়েছে দারিয়া। আর মা হওয়ার পরই সে আরও এক চাঞ্চল্যকর দাবি করে বসল। দারিয়া জানিয়েছে তার শিশুর বাবার নাম ইভান। আর তার বয়স নাকি মাত্র ১১। যদিও চিকিত্সকরা বলছেন, ১০ বছরের ছেলের বিজ্ঞানসম্মতভাবে বাবা হওয়া সম্ভব নয়। দারিয়ার মেয়ের বাবা নিশ্চয়ই অন্য কেউ। ১৪ বছর বয়সে মা হওয়ার পর বেশ পরিণত হয়ে উঠেছে দারিয়া। সন্তানের যত্নে কোনও খামতি রাখছে না সে।ইনস্টাগ্রামে মা হওয়ার খবর জানিয়েছিল দারিয়া। এটাও জানিয়েছিল যে সে এখন বেশ ক্লা’ন্ত। তাই পরে সবার স’ঙ্গে আবার কতা বলবে! ১৪ বছরে মা হওয়ায় তাঁকে কঠিন পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে। এখনও অবশ্য দারিয়া সদ্যোজাত মেয়ের ছবি শেয়ার করেনি। এত কম বয়সে মা হওয়ায় তার উপর অনেক ধ’কল গিয়েছে। ডাক্তা’রর তাই তাকে সম্পূর্ণ বিশ্রামে থাকতে বলেছে। রাশিয়ার নিয়ম, ১৬ বছর বয়সী কেউ অ’ভিভাবক হিসাবে দায়িত্ব পালন করতে পারে। তবে দারিয়ার ১৬ ‘হতে এখনও দুবছর বাকি। আর দারিয়ার দাবি যদি সত্যি হয় তা হলে তার বয়ফ্রেন্ড ইভানের ১৬ বছর ‘হতে বাকি আরো পাঁচ বছর। ততদিন কী হবে! জানে না কেউ।দারিয়া অবশ্য একের পর এক অসংল’গ্ন দা’বি করেছে। সে একবার বলেছিল, ইভানের বাবা তাকে ধ’*’ণ করেছিল। তাই সে গ’র্ভব’তী হয়ে পড়েছে। কিন্তু সেই সময় সে ল’জ্জায় কাউকে সেই কথা জানাতে পারেনি। আবার একবার সে দাবি করে, বাড়ির সামনে একটি ১৬ বছর বয়সী ছেলে তাঁকে ধ’*’ণ ক’রেছিল। কিন্তু আবার সে দাবি করে, তাঁর বয়’ফ্রেন্ড ইভানই মেয়ের বাবা। পু’লিস এই ব্যাপারে ত’দন্ত শুরু করেছে। স’দ্যোজাত স’ন্তানের ডিএ’নএ পরীক্ষা হবে বলে পু’লিস জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *