লাখ টাকা বেতনের চাকরি ছেড়ে চায়ের দোকান খুললেন ইঞ্জিনিয়ার

ছোটবেলা থেকেই আমাদের কোনো না কোনো পেশার প্রতি আগ্রহ থাকে। যদি সেই পেশাটি যথেষ্ট অর্থকরী হয় তবে অনেকেই শেষ পর্যন্ত সেই পেশাটিকে বেছে নিতে দ্বিধা বোধ করেন না৷ কিন্তু সেই পেশাটি যদি অতখানি আয় না দেয়! তবে অনেকেই জীবনের তাগিদে সেই প্যাশনকে ত্যাগ করতে বাধ্য হন। তবে ভালোবাসার পেশার টানে মোটা মাইনের চাকুরি ছেড়েছেন এমন মানুষ একেবারেই নেই তা নয়। সম্প্রতি এমন কান্ড করে আলোচনায় উঠে এসেছেন এক সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার।

নামী সংস্থার মোটা মাইনের নিশ্চিত জীবন ছেড়্ব তিনি রাস্তার পাশে চায়ের দোকান খুলেছেন। জানা যাচ্ছে, ঐ সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার উইপ্রোতেও কর্মরত ছিলেন। তার কথায় বড় বড় কোম্পানির চাকরি বড় অঙ্কের বেতন দিলেও মানসিক শান্তি দিতে পারেনি তাই চাকরি ছেড়ে তিনি বিকল্প পেশা খুঁজে নিয়েছেন।

তার কথায়, আমার টেবিলে প্রতিদিন চায়ের কাপ রাখা থাকত, কিন্তু সেই চা আমি কোনওদিন এমন স্বাদ পাইনি যেটাকে ভালো বলা যায়। আমি ভাল চায়ের খুব ভক্ত তাই এমন একটা চা-দোকান করতে চেয়েছিলাম যেখানে গেলে মানুষ মনের মতো চা পাবে। আর তার জন্যই আমি চায়ের দোকান শুরু করেছি আর নিজে হয়েছি ইঞ্জিনিয়ার চা-ওয়ালা।”

আইএএস অফিসার অবনীশ শরণ প্রথম এই চায়ের দোকানের ছবি টুইট করেন। ছবিতে দেখা যায় নিজের সম্পর্কে সব কিছুই তিনি লিখে দিয়েছেন দোকানের গায়ে। মুহুর্তে ভাইরাল হয়ে চায় সেই ছবিটি। দেশজুড়ে উপচে পড়ে প্রশংসার বন্যা। যদিও যাকে ঘিরে এই উন্মাদনা সেই লোকটি সম্পর্কে জানা যায়নি কিছুই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *