তিতাস গ্যাস নিয়ে নতুন তথ্য দিলো মসজিদ কমিটি

নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বি’স্ফোরণে ঘটনার মাত্র ২০ দিন আগেই গ্যাস লিকেজের বি’ষয়টি তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডকে জানিয়েছিল মসজিদ কমিটির সভাপতি গফুর মেম্বারের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল। গতকাল শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) রাতে মসজিদটির ৫১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটির ধর্মবি’ষয়ক সম্পাদক মাওলানা মোহাম্মদ আল-আমিন একটি জাতীয় দৈনিককে এমন তথ্যই

জানিয়েছেন। তিনি বলেন, প্রায় পৌনে এক বছর ধরেই আমরা একাধিকবার বি’ষয়টি জানিয়েও কোনো ফল পাইনি। আগে বা পরেও তো এমন ঘটনা ঘটতে পারত। যদি ওই দিন জুমার নামাজের সময় এ ঘটনা ঘটত, তবে আজ লা’শ রাখার জায়গা দেয়া যেত না।মাওলানা মোহাম্মদ

আল-আমিন বলেন, ‘আমরা নামাজে এলেই গ্যাসের গন্ধ পেতাম। দিন দিন এ গন্ধ বেড়েই চলছিল। পরে মসজিদ কমিটির সভাপতির নেতৃত্বে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষকে এ ব্যাপারে জানানো হলেও তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি।’ মসজিদের সামনে দিয়ে গ্যাসের রাইজার ও লাইনগুলো

গেছে। তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ চাইলে এক ঘণ্টায় এটি সমাধান করে দিয়ে যেতে পারত। তারা তা করেনি। তাদের সেই গাফলতিতে হয়তো আজকের এ ঘটনা ঘটল। তিনি বলেন, ‘তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানাইনি আমরা; এটি আমাদের ভু’ল ছিল হয়তো। আর সেটিই এখন সামনে এসেছে। তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে অনবরত গ্যাস বের হচ্ছে; তবু তারা আসেনি।’ সূত্র: যুগান্তর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *