ফেসবুকের লাইভের কারনে বেঁচে গেল বৃদ্ধের প্রাণ

দীর্ঘদিনের অসুস্থতায় বিছানা থেকে ওঠার শক্তি নেই। শুয়ে শুয়ে মৃত্যুর প্রহর গুনছেন। ডাক্তার জানিয়েছেন, ওষুধ বন্ধ করলে তিনি মারা যাবেন। এমন পরিস্থিতিতে দিন কাটানো ফ্রান্সের এক ব্যক্তি ‘আরামের মরণের’ দাবি আদায়ে ফেসবুকে আত্মহত্যার লাইভ করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ফেসবুক সেটা আটকে দিয়েছে।

প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জ জানিয়েছে, আলাইন কোক্ক নামের ৫৭ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় খাওয়া ছেড়ে দেন। নেননি কোনো ওষুধও। এরপর লাইভে যান। তার অবস্থা এমন, সারা জীবন ওষুধ খেয়ে গেলেও আর ভালো হবেন না।

আরও পড়ুন : মেসেঞ্জারে বড় পরিবর্তন আনছে ফেসবুক

ফ্রান্সে স্বেচ্ছায় মৃত্যু নিষিদ্ধ। কিন্তু আলাইন এভাবে বাঁচতে চান না। তাই প্রেসিডেন্টের কাছে আবেদন করেছিলেন, যেন তাকে মৃত্যুর অনুমতি দেয়া হয়। কিন্তু সরকার তার আবেদনে সাড়া দেয়নি।

ফেসবুক ভার্জকে ইমেইলের মাধ্যমে জানিয়েছে, ‘আলাইনের প্রতি আমাদের সমবেদনা। কিন্তু আমরা এভাবে আত্মহত্যার লাইভ সম্প্রচার করতে পারি না। তাই তার ভিডিও ব্লক করা হয়েছে।’

ফ্রান্সের গণমাধ্যম জানিয়েছে, ফেসবুক ভিডিও ব্লক করলেও অন্য উপায়ে নিজের মৃত্যুর লাইভ করতে চান আলাইন। এ জন্য তিনি নতুন উপায় খুঁজছেন।

আলাইনের আশা, তার মৃত্যুর পর ফ্রান্স সরকার অন্যদেরও গণতান্ত্রিক অধিকারে স্বেচ্ছায় মৃত্যুবরণের অনুমতি দেবে!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *