মায়ের পর একে একে পাঁচ ছে’লের মৃ’ত্যু

একটি বিয়ের অনুষ্ঠান পুরো পরিবারকে শেষ করে দিয়েছে। পারিবারিক সেই বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে ফিরে অ’সুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতা’লে ভর্তি করা হয় পরিবারের ৮৮ বছর বয়সী বৃদ্ধাকে। সেখানেই তিনি মা’রা যান। এর ১৫ দিনের ব্যবধানের বৃদ্ধার ৫ ছে’লেও মা’রা যান।করো’নাভাই’রাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে সামাজিক কিংবা শারীরিক দূরত্ব মেনে চলার জন্য বার বার বলা হলেও ওই পরিবারটি তা না মেনে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নেয়।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, প্রা’ণঘাতী করো’নাভাই’রাসে আ’ক্রান্ত হয়ে মাত্র ১৫ দিনের মধ্যে মা’রা গেছেন পরিবারের মা ও তার পাঁচ ছে’লে।ভা’রতের ঝাড়খণ্ডের ধানবাদের কাতরাসে এই ঘটনা ঘটে। জুনে পারিবারিক এক বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিল পরিবারটি।মায়ের মৃ’ত্যুতে শোকে ভেঙে পড়ে বৃদ্ধার ৫ ছে’লে। শেষকৃত্যে তারাই মায়ের দেহ কাঁধে করে নিয়ে যান শ্মশানে। তার সৎকার শেষ করে এসে হাসপাতাল সূত্রে তারা জানতে পারেন, করো’না আ’ক্রান্ত ছিলেন তাদের মা।

এরপর একে একে অ’সুস্থ হয়ে পড়েন পাঁচ ভাই। কয়েকদিনের ব্যবধানেই তাদের সবাইকে হাসপাতা’লে করা হয়। এরপর মায়ের মৃ’ত্যুর ১৫ দিনের মধ্যে তাদের সবার মৃ’ত্যু হয়।হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, পাঁচ জনের মধ্যে এক জনের আগে থেকেই ক্যানসার ছিল। বাকিদের মৃ’ত্যু করো’নাতে হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।একই পরিবারের ছয় জনের মৃ’ত্যুর ঘটনা সারা দেশে নজিরবিহীন বলেই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এদিকে মাত্র ১৫ দিনের মধ্যে গোটা পরিবার মা’রা যাওয়ায় স্থানীয়ভাবে শোকের ছায়া নেমে আসে।হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, পাঁচ জনের মধ্যে এক জনের আগে থেকেই ক্যানসার ছিল। বাকিদের মৃ’ত্যু করো’নাতে হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *