প্রথমে পজিটিভ, পরে নেগেটিভ হয়েও চিকিৎসকের মৃত্যু

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার প্রথম এমবিবিএস চিকিৎসক সাইফুল ইসলাম (৬৮) মারা গেছেন। গতকাল বুধবার রাত ১১টা ১০ মিনিটের দিকে ধানমন্ডির আনোয়ার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এই চিকিৎসকের গতকালের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল।বিষয়টি নিশ্চিত করে তার নিকট আত্মীয় সাব্বির আহম্মেদ জানান, প্রথমে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন সাইফুল ইসলাম। তবে বুধবার তার করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। কিন্তু এদিন মধ্যরাতে হঠাৎ করে হার্ট অ্যাটাকে তিনি মারা যান।

ডা. সাইফুল ইসলাম তাড়াশ উপজেলার মাধাইনগর ইউনিয়নের ওয়াশীন গ্রামের বাসিন্দা। তার পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, নিয়ম মেনে আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার আজিমপুর কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।১৯৭২ সালে তাড়াশ উপজেলার প্রথম এমবিবিএস শিক্ষার্থী হিসেবে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি হন ডা. সাইফুল ইসলাম। সেখান থেকে পড়ালেখা শেষ করে প্রথমে ঢাকা মেডিকেলের মেডিসিন রেজিস্টার হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। পরবর্তী সময়ে তিনি শিক্ষাবৃত্তি নিয়ে সৌদি আরবে চলে যান।

সেখানে দীর্ঘ ২০ বছরের বেশি সময় ধরে চিকিৎসক হিসেবে সৌদির জনগণ ও হাজিদের চিকিৎসা সেবা দেন সাইফুল ইসলাম। পরে দেশে ফিরে ঢাকায় মেডিনোভা হাস পাতালের ধানমন্ডি শাখার চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত ছিলেন তিনি। এ ছাড়া তিনি ঢাকার আল মানারাত হাসপাতাল, লালমাটিয়ার অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ছিলেন।ব্যক্তি গত জীবনে সাইফুল ইসলাম স্ত্রী, চিকিৎসক এক ছেলে হাবিবুর রহমান ও চিকিৎসক মেয়ে নাসিফা খাতুনসহ অসংখ্য শুভানুধ্যায়ী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *