এবার মুখ খুললেন অঞ্জনা,‘প্রেম থাকলে সহজে কাজ পাওয়াটাই ইন্ডাস্ট্রির নিয়ম’

প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণাকে নিয়ে শ্রীলেখা মিত্রর অভিযোগের কোনও ভিত্তি নেই। এটা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির একটা ‘কমন’ ব্যাপার। অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রর বিস্ফোরক অভিযোগ নিয়ে এমনই বক্তব্য আরেক অভিনেত্রী অঞ্জনা বসুর।নেপোটিজম নিয়ে সম্প্রতি একের পর এক বোমা ফাটিয়েছেন টলিউড অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।নিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকে লাইভে এসে তিনি বলেছেন, একসময় প্রসেনজিতের সঙ্গে ঋতুপর্ণার প্রেমের জন্য তিনি নায়িকার চরিত্র পাননি।

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় সম্পর্কে শ্রীলেখা বলছেন, “আমাদের সমাজটাই পুরুষতান্ত্রিক। তাই টলিউড তার বাইরে হবে এটা আমরা আশা করতে পারি। বুম্বাদা অর্থাৎ প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের কথাতেই সব কিছু চলত। প্রথমদিকে আমি নায়িকার কোনও চরিত্র পাইনি। তখন ইন্ডাস্ট্রিতে এক নম্বরে ছিলেন বুম্বাদা। তখন বোনের চরিত্র করেছি। সেকেন্ড লিড করেছি। যদিও আমি জানতাম আমি নায়িকা হওয়ার যোগ্য। কিন্তু সেই সময় ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের সঙ্গে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের প্রেম।”

এ প্রসঙ্গে অঞ্জনা বলেন, “শুধু টলিউড নয়, বলিউডেও এটা রয়েছে। আগামী ২৫ বছর, ৫০ বছর পর এটাই থাকবে। আসলে যার যাকে পছন্দ, যার সঙ্গে কাজ করতে ‘কমফোর্ট ফিল’ করে সে তাকে নিয়ে কাজ করতে চায়। যদি পরিচালক, প্রযোজকদের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক থাকে, বন্ধুত্ব থাকে তাহলে কাজ করতে সুবিধে হয়। এটা সমাজের নিয়ম। হ্যাঁ, এটা ঠিক, আমাদের এখানে অনেক খারাপভাবে হয়। কিন্তু কেউ এটা বদলাতে পারবে না।

সুশান্ত সিং রাজপুত মারা গেছে বলে কি করণ জোহর বদলে যাবে? বলিউড ইন্ডাস্ট্রি বদলে যাবে?ইউটিউব চ্যানেলের লাইভে অঞ্জনা বসুকেও কাঠগড়ায় তুলেছেন শ্রীলেখা। তিনি বলছেন, “শুধু সিনেমা নয় সিরিয়ালেও এরকম হয়েছে। অঞ্জনা বসু এবং গার্গী রায়চৌধুরী সঙ্গে প্রযোজকের প্রেম হয়েছিল বলে আমার সিরিয়ালের অংশ অনেক কমে গিয়েছিল।

এপ্রসঙ্গে অঞ্জনা বলেন, “আমি জানি না ও আমার সম্পর্কে কি বলেছে। আমার এত ধৈর্য্য নেই ওর কথা শোনার। এটা বিকৃত রুচির পরিচয়। ও আমার থেকে অনেক সিনিয়র। সিনিয়রদের থেকে আমরা সবসময় শিখি। ও যদি আমার সম্পর্কে এটা বলে থাকে তাহলে বলব, আমি জুনিয়র হিসেবে ওর থেকে এটা শিখেছি।”
তাঁর প্রশ্ন, “এসব করে কি ওর খুব সম্মান বাড়ছে? জুনিয়র হিসেবে আমার ওর জন্য খারাপ লাগছে।অঞ্জনার কথায়,“আমাকেও এরকম অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে। কিন্তু বলে কি হবে? এই সিস্টেমটা ভাঙার ক্ষমতা আমাদের নেই।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *