মৃ’ত্যুর ৩ দিন আগে কর্মচারীদের বেতন দিয়ে বলেছিলেন, ‘এই শেষবার’ !

মা’রা যাবার ৩ দিন আগেই পরিচারক-পরিচারিকা ও কর্মীদের বেতন মিটিয়ে দেন সুশান্ত। শুধু তাই নয়, এই কথাও বলেন, আর কোনওদিন তিনি তাঁদের বেতন দিতে পারবেন না।

রবিবার সকালে মৃ’ত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি। প্রাথমিক ত’দন্তে পু’লিশের অনুমান, আত্মহ’ত্যাই করেছেন সুশান্ত। হঠাৎ করেই কি এই সিদ্ধান্ত? নাকি অনেকদিন ধরেই মানসিক প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন অ’ভিনেতা? উত্তর খুঁজছে পু’লিশ।

এরই মধ্যে জানা গেল, মা’রা যাওয়ার ৩ দিন আগেই পরিচারক-পরিচারিকা ও কর্মীদের বেতন মিটিয়ে দেন সুশান্ত। শুধু তাই নয়, এই কথাও বলেন, আর কোনওদিন তিনি তাঁদের বেতন দিতে পারবেন না।

তাতে নাকি সুশান্তের কর্মচারীরা বলেন, তিনি অ’তিমা’রীর দুর্দিনে যেভাবে তাঁদের পাশে থেকেছেন, তা প্রয়োজনের থেকেও ঢের বেশি। তাই আগামী দিনে তাঁরা কোনওভাবে সামলে নেবেন।কিন্তু তাঁরা আঁচ করতেও পারেননি, এভাবে জীবন শেষ হয়ে যাবে সুশান্তের।

অ’ভিনেতার মৃ’ত্যুর কারণ খুঁজতে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পু’লিশ। সুশান্তের বাবা, বান্ধবী রিয়া ও পরিবারের লোকেদের সঙ্গে কথা বলেছে পু’লিশ। জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে ঘনিষ্ঠদেরও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *