চুলে তেল দেয়ার পর এই ভুলগুলো করেন না তো?

তেলে চুল সুন্দর- একথা সবাই জানেন। চুলের সৌন্দর্য বাড়াতে কিংবা পর্যাপ্ত পুষ্টি জোগাতে তেলের গুরুত্ব নিয়ে নতুন কিছু বলার নেই। চুলে নিয়মিত তেল ব্যবহার করলে তা স্ক্যাল্পকে ব্যাকটেরিয়া ও অন্যান্য সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করে। কিন্তু চুলে তেল ব্যবহারের পরে বেশিরভাগ মেয়েই এমনকিছু কাজ করেন, যার ফলে উপকারের চেয়ে ক্ষতিই হয় বেশি। আপনিও সেই কাজগুলো করেন না তো? দেখে নিন-

jagonews24

অতিরিক্ত তেল মাখা: অনেকে মনে করেন, বেশি তেল মাখলেই বুঝি চুলে বেশি পুষ্টি মিলবে। বিষয়টি কিন্তু তেমন নয়। বরং তেল বেশি মাখলে তা পরিষ্কার করতে আবার শ্যাম্পুও বেশি খরচ হবে। অতিরিক্ত শ্যাম্পু চুলের স্বাভাবিক আর্দ্রতাকে নষ্ট করে দেয়। ফলে চুল আরও বেশি শ্রীহীন হয়ে পড়ে। তাই চুলে তেল পরিমাণমতোই ব্যবহার করুন।

jagonews24

তেল মেখেই চুল আঁচড়ানো: অনেকেই চুলে তেল দিয়ে সঙ্গে সঙ্গে চুল আঁচড়ান। মাথার ত্বকে ঘষে ঘষে তেল মাখার কারণে মাসাজের কাজটা হয়ে যায়। স্বাভাবিকভাবেই এই সময় স্ক্যাল্পের রোমছিদ্রগুলো খোলা থাকে আর চুলও ভীষণ ভঙ্গুর অবস্থায় থাকে। তেল মাখার পর পরই চুল আঁচড়ালে তাই চুল ভেঙে কিংবা ঝরে যেতে পারে। তাই তেল মাখার ঠিক পরেই চুল আঁচড়ানো থেকে বিরত থাকুন।

jagonews24

jagonews24

চুল বেঁধে রাখা: চুলে তেল ব্যবহার করার পর চুল খানিকটা দুর্বল ভঙ্গুর অবস্থায় থাকে। এই অবস্থায় চুল বেঁধে রাখলে গোড়ায় বেশি টান পড়ে এবং চুল সহজেই উঠে আসতে পারে। তাই তেল দেয়ার পর চুল না বেঁধে বরং ছেড়ে রাখুন।

jagonews24

তেল দেয়ার পরেই ধুয়ে ফেলা: চুলে পর্যাপ্ত পুষ্টি জোগাতে অন্তত তেল দেয়ার পর অন্তত ঘণ্টাখানিক রাখা দরকার। কারণ তেল দেয়ার পরপরই যদি চুল ধুয়ে ফেলেন তবে তেলের পুষ্টি চুল পাবে না।

jagonews24

অতিরিক্ত মাসাজ: মাসাজ নিশ্চয়ই আরামদায়ক। তেল দেয়ার পর স্ক্যাল্পে মাসাজ করলে আরামে চোখ বন্ধ হয়ে আসে যেন। কিন্তু অতিরিক্ত মাসাজ হতে পারে ক্ষতির কারণ। কারণ এতে চুলের গোড়া দুর্বল হয়ে যেতে পারে। মিনিট দশ-পনেরোর বেশি মাসাজ করবেন না।

jagonews24

চুল তোয়ালে দিয়ে জড়ানো: এটি অনেকেরই অভ্যাস যে চুলে তেল ব্যবহারের পর চুলে তোয়ালে জড়িয়ে রাখেন। এতে তোয়ালের ঘষা লেগে চুল ভেঙে যেতে পারে। তোয়ালের বদলে নরম গেঞ্জি কাপড় বা পুরোনো সুতির কাপড় দিয়ে চুল জড়িয়ে রাখুন।

jagonews24

একাধিক উপাদান ব্যবহার: তেলের সঙ্গে এটা-সেটা মিশিয়ে ব্যবহারের অভ্যাস অনেকের। কিন্তু এটি ঠিক নয়। কারণ এতে চুলের টেক্সচার নষ্ট হয়ে গিয়ে চুল রুক্ষ হয়ে যাওয়ার ভয় থাকে।

এইচএন/এমকেএইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *