অন্যের ঘর দখল করতে দলীয় সাইনবোর্ড ব্যবহারের অভিযোগ

পিরোজপুরের কাউখালীতে অন্যের ঘর দখল করে আওয়ামী লীগের দলীয় সাইনবোর্ড দিয়েছেন দখলদাররা। আর এ অভিযোগে ভুক্তভোগী ঘরের মালিক কাউখালী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। ভুক্তভোগী ওই ঘরের মালিক মো. ইব্রাহিম শিকদার।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ওই ইউনিয়নের পাঙ্গাশিয়া বাজারের ব্রিজের দক্ষিণ পার্শ্বে স্থানীয় ইব্রাহিম শিকদারের একই মালিকাধীন ৫টি দোকান ঘর রয়েছে। এর মধ্যে ৪টি ঘর ভাড়া দেয়া ও ১টি ওই মালিকের নিজের কাজের জন্য মালামাল ভর্তি করে রাখতো। কিন্তু গত ৩ জুন দুপুরে ওই ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সোহেল শিকদারের নেতৃত্বে স্থানীয় খলিল গাজীর পুত্র পলাশ গাজী, ছিদ্দিক খানের পুত্র মো. বাবু খান, ফারুক শিকদারের পুত্র সজিব শিকদার, মজলু খানের পুত্র মো. শরিফুল খান, বারেক শিকদারের পুত্র মো. ওসমান শিকদারসহ আরো ৭/৮ জন ওই মালামাল ভর্তি ঘরটির তালা ভেঙ্গে তা দখল করে নেন। এসময় ওই ঘরে থাকা কাঠসহ বিভিন্ন মালামাল ভাংচুর করে। পরে তা দখল করে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয় হিসাবে সাইনবোর্ড টানিয়ে দেন। ঘরটি দখলকারী অভিযুক্ত ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সোহেল শিকদার জাতীয় পার্টি (মঞ্জু) সমর্থিত শিয়ালকাঠী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন শিকদারের ভাইপো।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সোহেল শিকদার জানান, ‘ওই ঘরের জায়গা নিয়ে ঘরের মালিক দাবি করা ইব্রাহিমের সাথে স্থানীয় এক ব্যক্তির সাথে বিরোধ রয়েছে। সেই জমি আমাদের কিছু ছোট ভাইরা মিলে দলীয় অফিসের জন্য নেয়া হয়েছে। ওই জমির মালিক ইব্রাহিম শিকদার নন।’

শিয়ালকাঠী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাস্টার মো. মনিরুজ্জামান ওই ঘর দখলের ব্যাপারে কিছুই জানেন না বলে জানান তিনি।

তবে সাধারণ সম্পাদক মো. নাছির উদ্দিন জানান, ‘ওই ঘরটি স্থানীয় এক অসহায় ব্যক্তির। ওই ঘরটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের ছোট ভাই লতিফ শিকদার দখল করতে তার ভাইপো স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সোহেল শিকদারকে ব্যবহার করেছেন।’

তিনি আরো জানান, ‘অন্যের ঘর দখল করে তাতে দলীয় অফিস হিসাবে সাইন বোর্ড টানানোর ব্যাপারে আমরা পুলিশকে অবহিত করেছি। জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বলা হয়েছে।’

এ ব্যাপারে কাউখালী থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মো. নজরুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে জেনে বলতে পারবো এবং আগামীকাল শনিবার (১৩ জুন) স্থানীয় ভাবে শালিস বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *