চাঁদপুরে করোনা উপসর্গে নিয়ে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

চাঁদপুরে করোনার উপসর্গ নিয়ে মঙ্গলবার স্বামী-স্ত্রীসহ সর্বোচ্চ আটজনের মৃত্যু হয়েছে। জেলার হাজীগঞ্জে পাঁচজন, সদরে দুইজন এবং কচুয়ায় একজন।

মৃতরা হলেন, হাজীগঞ্জ পৌরসভার টোরাগড়ের আবুল কাসেম (৫৫), খাটরা বিলওয়াইর সাগর কাজী (৪০), উপজেলার রামপুর গ্রামের হোসেন মল্লিক (৬৫) ও তার স্ত্রী (৫৫) এবং রাজাপুরের সুনীল দেবনাথ (৬০)। এছাড়া চাঁদপুর সদরের মৈশাদী গ্রামের টেলু মিয়া (৪২), ছোট সুন্দরের আবু বক্কর তালুকদার (৭০) এবং কচুয়ার গোহাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী আবদুল হাই মুন্সী (৬০)।

মৃত্যুদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন করা হয়েছে। একই সঙ্গে তাদের নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্যবিভাগ।

চাঁদপুরে গত কয়েকদিন ধরে চার-পাঁচজনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটলেও মঙ্গলবারই সর্বোচ্চ আটজন মারা গেছেন। এতে জেলার হাজীগঞ্জে এই পর্যন্ত ৩১ জন করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যান।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের হিসেবের মতে করোনা পজিটিভ রোগীর সংখ্যা ২৮৩ জন। এই সংখ্যার মধ্যে মারা গেছেন ২৩ জন। এছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে আরও মারা গেছেন ৪৫ জন। যাদের মৃত্যুর পর নমুনা সংগ্রহ করা হলেও এখনো পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া যায়নি।

এদিকে জেলা প্রশাসন তৃতীয় দফায় মঙ্গলবার থেকে নতুন নিয়মে লকডাউন ঘোষণা করেছে। বলা হয়েছে, শহরে কেউ করোনায় আক্রান্ত হলে রোগীর বাড়ি এবং গ্রামে হলে আক্রান্ত রোগীর বাড়িসহ আশপাশের আরও চারটি বাড়ি লকডাউন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *