প্রতিমন্ত্রীর মাথা ন্যাড়া করে দিলেন স্ত্রী

মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশজুড়ে চলা লকডাউনে বন্ধ রয়েছে সেলুন। এতে চুল কাটার সমস্যায় পড়ছেন অনেকে। ফলে মাথা ন্যাড়া করার হিড়িক পড়েছে। অধিকাংশই পরিবারের সদস্যদের দিয়েই কাজটি সেরে ফেলছেন। সেই তালিকায় এবার যুক্ত হলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি।

স্ত্রী আরিফা জেসমিন কনিকাকে দিয়ে কাজটি সেরেছেন প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। শুধু নিজে নয়, প্রতিমন্ত্রীর ছেলে অনির্বাণও বাবার সঙ্গে ন্যাড়া হয়েছেন। গতকাল শনিবার বিকেলে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে ন্যাড়া মাথায় কয়েকটি ছবি শেয়ার করে বিষয়টি জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী নিজেই।

পোস্টে স্ত্রী আরিফা জেসমিন কনিকাকে ধন্যবাদ জানিয়ে জুনাইদ আহমেদ পলক লিখেছেন, ‘ঘরে থাকতে সবারই কষ্ট হচ্ছে! অনেক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছি! তার মধ্যে একটা অন্যতম সমস্যা হচ্ছে মাথার চুল বড় হয়ে যাওয়া! সমস্যার সমাধান কী হতে পারে?

সমাধানে সহযোগিতা করলো আমার প্রিয়তমা স্ত্রী কনিকা!আর আমার সঙ্গী হলো আমার ছোট ছেলে অনির্বাণ!’

প্রতিমন্ত্রী পোস্ট দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। অনেকে লাইক ছাড়াও মন্তব্য করেন। অনেকেই আবার শেয়ার দেন নিজেদের টাইমলাইনে। তার এই স্ট্যাটাস দেখে হাসান জাকির নামে একজন লিখেছেন, ‘সেলুনওয়ালারা প্রণোদনা পাওয়ার যোগ্য। কারণ আমরা সবাইতো বাসায় চুল নিজেরা কাটছি; তাই বোঝা উচিত সেলুন-নাপিত তারা সরকারের ঘোষিত প্রণোদনার আওতায় পড়ে।’

মতিন নামে একজন লিখেছেন, ‘ভাই আপনার মনটা অনেক শিশুসুলভ। এই রকম মানুষকে আল্লাহ নিজ থেকে ইচ্ছে করে দুনিয়ায় পাঠায়। আপনি হাজার চেষ্টা করলেও চেঞ্জ হতে পারবেন না। আপনি মন্ত্রী থাকেন বা না থাকেন সারাজীবন চেষ্টা করে যাবেন মানুষের ভালোবাসা নেওয়ার এবং আপনার সন্তানরাও যেন আপনাকে ছাড়িয়ে যায় সেই দোয়াই করি।’

শরিফ খান লিখেছেন, ‘আমাদের মন্ত্রী মহোদয় এইবার ভাবির কষ্টটা বুঝবেন আশা করি। ভাবি বড় চুল নিয়ে কী কষ্ট করেও কাজ করে সকলের দায়িত্ব পালন করে থাকেন। ভাবিকেসহ ধন্যবাদ।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *