সাগরের নিচ দিয়েই চলবে গাড়ি

ফারো আইল্যান্ডস আটলান্টিক মহাসাগরের একটি দ্বীপপুঞ্জ। স্বশাসিত এই এলাকা ইউরোপের দেশ ডেনমার্কের নিয়ন্ত্রণাধীন। এই দ্বীপপুঞ্জেই সাগরতলে নির্মিত হয়েছে একটি টানেল। সবকিছু ঠিক থাকলে সেই টানেল দিয়ে আগামী ১৯ ডিসেম্বর যানবাহন চলাচল শুরু হবে।

ফারো আইল্যান্ডসের অবস্থান স্কটল্যান্ড থেকে ৩২০ কিলোমিটার উত্তর-উত্তরপশ্চিমে উত্তর আটলান্টিকে। নরওয়ে আর আইসল্যান্ডের প্রায় মাঝে পড়েছে দ্বীপপুঞ্জটি। ৫৪০ বর্গমাইলের এই এলাকার বাসিন্দা রয়েছে প্রায় ৫৩ হাজার। ১৮টি ছোট ছোট দ্বীপ নিয়ে এই দ্বীপপুঞ্জ গঠিত।

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়, সাগরতলে টানেলটি নির্মাণ করা হয়েছে ফারো আইল্যান্ডসের স্ট্রেময় দ্বীপ আর আইস্টুরয় দ্বীপকে সংযুক্ত করতে। এর দৈর্ঘ্য ১১ কিলোমিটার।

এই টানেল ফারো আইল্যান্ডসের রাজধানী টোশাও থেকে রুনাভিক এলাকার মধ্যে যাতায়াতের সময় এক ঘণ্টা কমিয়ে আনবে। এখন টোশাও থেকে রুনাভিকে যেতে ১ ঘণ্টা ১৪ মিনিটের মতো লাগে। টানেলটি চালু হলে ১৬ মিনিটেই যাওয়া যাবে এই দুই এলাকার একটি থেকে অন্যটিতে।

টানেলটির নাম দেওয়া হয়েছে আইস্টুরয় টানেল। নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট এসটানলার ডট এফওর তথ্যমতে, টানেলটির ঢাল নামতে নামতে সমুদ্রপৃষ্ঠের ৬১৩ ফুট নিচ পর্যন্ত গেছে। এরপর আবার উঠতে শুরু করেছে। সাগরজলের চাপসহ অন্যান্য নিরাপত্তার দিকেও নজর রেখেছেন নির্মাতারা। এ জন্য টানেলটির কোথাও ৫ শতাংশের বেশি ঢাল নেই।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের তথ্যমতে, ১৭ ডিসেম্বর টানেলটিতে পরীক্ষামূলক যানবাহন চলবে। এ দিন জরুরি সেবা দেওয়ার কাজে নিয়োজিত যানবাহনই ছুটবে এর মধ্যে দিয়ে। পরীক্ষায় সন্তোষজনক ফলাফল পেলে ১৯ ডিসেম্বর থেকে সাগরতলে ছুটতে শুরু করবে গাড়ি।

কেবল টানেল নির্মাণ করেই কাজ শেষ করেনি কর্তৃপক্ষ। টানেলটি এরই মধ্যে আলোকসজ্জা আর চিত্রকর্মে সাজানো হয়েছে। সৌন্দর্যবর্ধনে ফারো আইল্যান্ডসের সুপরিচিত চিত্রশিল্পী টোন্ডুর পাটুসনের আঁকা ছবি ব্যবহার করা হয়েছে এখানে। এ ছাড়া ভাস্কর্যও স্থাপন করা হয়েছে টানেলে।

তবে টানেলটি বিনা মূল্যে পার হওয়া যাবে না। লোকাল ডট এফও নামের স্থানীয় একটি সংবাদ ওয়েবসাইট এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, যাত্রীবাহী গাড়ি টানেলটি পার হতে চাইলে ৯ দশমিক ১০ পাউন্ড (বাংলাদেশি মুদ্রায় এক হাজার টাকার কিছু বেশি) টোল দিতে হবে।

এই টোল দিয়ে একটি গাড়ি কেবল একবার টানেল পার হতে পারবে। তবে যাত্রাপথে টোল দেওয়ার ঝামেলা এড়াতে স্থানীয়রা চাইলে গ্রাহক হতে পারবেন। এতে টানেল পারাপার সাশ্রয়ীও হবে।

ফারো আইল্যান্ডসে সাগরতলে আরও একটি টানেল নির্মাণাধীন রয়েছে। টানেলটি যুক্ত করবে স্যান্ডয় আর স্ট্রেময় দ্বীপকে।

Author: Rijvi Ahmed

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *