এক ব্যাগের দাম প্রায় ৪৫ কোটি টাকা

সাধারণত চামড়ার গুণগত মান, কারুকার্যসহ আরো অনেক বিষয়ে নির্ভর করে তৈরি হয় একটি দামি হ্যান্ডব্যাগ। তবে এবার ইতালিতে তৈরি করা হয়েছে এমন একটি ব্যাগ যার দাম শুনলে চোখ কপালে উঠবে অনেকেরই।

ডেইলি মেইল’র এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ইতালির ব্রান্ডেড কোম্পানি বোলোনা-ভিত্তিক বোয়ারিনি মিলানেসি তিনটি পার্ভা এমিয়া এমন একটি ব্যাগ তৈরি করেছে। যার জন্য প্রতি ব্যাগ পিছু প্রায় এক হাজার ঘণ্টা কাজ করতে হয়েছে।

বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই হ্যান্ডব্যাগটির মূল্য ৫.৩ মিলিয়ন। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৪৪ কোটি ৯৩ লাখ। এই ব্যাগটিকে কিছুটা ‘সামুদ্রিক’ বলা চলে। কারণ সমুদ্রকে উপজীব্য করেই গড়ে তোলা হয়েছে ব্যাগটি।

আধা-চকচকে অ্যালিগেটরের ত্বক থেকে তৈরি, হ্যান্ডব্যাগটি ১০ ​টি সাদা সোনার প্রজাপতি দিয়ে সজ্জিত। এর মধ্যে চারটি হিরা এবং তিনটি নীলকান্তমণি এবং বিরল প্যারাইবা টুরমলাইনস দ্বারা সজ্জিত।

ব্যাগটির মোট ওজন ১৩০ ক্যারেটেরও বেশি। এটিতে একটি ডায়মন্ড পাভ ক্লপও রয়েছে। এই ব্যাগের নকশা থেকে শুরু করে দাম নির্ধারণ সবকিছুই সমুদ্র দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে করা হয়েছে।

এছাড়াও এই ব্যাগ তিনটি বিক্রয়ের পর যে-টাকা আয় হবে তার থেকে বড় একটি অংশ সামুদ্রিক পরিবেশকে প্লাস্টিক মুক্ত এবং জল দূষণ রোধের কাজে ব্যবহার করা হবে।

Author: Rijvi Ahmed

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *