তোমার জন্মের আগ থেকে সেঞ্চুরি করি: আফগান পেসারকে আফ্রিদি

শ্রীলংকা প্রিমিয়ার লিগে গল গ্ল্যাডিয়েটরসের হয়ে খেলছেন শহীদ আফ্রিদি। সোমবার ক্যান্ডি টাস্কারসের কাছে ২৫ রানে হেরেছে গল। এই ম্যাচে আফ্রিদি শূন্য রান করে আউট হন। এর পর ম্যাচ শেষে প্রতিপক্ষ দলের আফগান বোলারের উচ্ছ্বাস দেখে মেজাজ হারান বুম বুম আফ্রিদি। তেড়ে গিয়ে দম্ভ করে বলেন, ‘তোমার জন্মের আগ থেকে আমি সেঞ্চুরি করি।’ খবর টাইমস নাউ নিউজের।

কথাটা এক অর্থে মিথ্যা নয়। কারণ যে বোলারকে আফ্রিদি এ কথা বলেছেন, তার নাম নাভিন-উল-হক। আফগান এই খেলোয়াড়ের জন্ম ১৯৯৯ সালে। তার জন্মের আগেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় শহীদ আফ্রিদির। শুধু আন্তর্জাতিক অভিষেকই নয়, ওয়ানডের দ্রুততম সেঞ্চুরিও ততদিনে হয়ে গেছে এক সময়কার এই ড্যাশিং ওপেনারের। একটি বিশ্বকাপ খেলার অভিজ্ঞতাও ততদিনে হয়ে গেছে তার।

এসপিএলে গতকাল মুখোমুখি হয়েছিল ক্যান্ডি টাস্কারস ও গল গ্ল্যাডিয়েটরস। ঘটনার সূত্রপাত ক্যান্ডির পেসার নাভিন ও পাক পেসার মোহাম্মদ আমিরের কথা কাটাকাটির মধ্য দিয়ে। ১৮তম ওভারে নাভিনের চতুর্থ বলে বাউন্ডারি মারেন আমির। এর পরের বল অতিমাত্রায় বাউন্স দেন নাভিন। পরের বলও ডট হয়। এর পর নাভিন দুকথা শুনিয়েও দিয়েছেন আমিরকে। শেষ ওভারেও দুজনের মধ্যে বাদানুবাদ হয়। দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি চলেছে ম্যাচ শেষ হওয়ার পরও। এমন তর্কাতর্কির মধ্যে অন্যরা এসে নাভিনকে থামানোর চেষ্টা করলেও থামেননি আফগান পেসার।

দুদল যখন ম্যাচ শেষে লাইনে দাঁড়িয়ে হাত মেলাচ্ছিলেন, তখনই আফ্রিদি সতীর্থের সাহায্যে এগিয়ে আসেন। ক্ষুব্ধ আফ্রিদি নাভিনকে জিজ্ঞেস করেন, কী হয়েছে? আফ্রিদির এমন রাগ ভালোভাবে নেননি নাভিন। তাই নাভিনও কিছু একটা বলে বসেন বুম বুমকে। এর কড়া জবাব দেন আফ্রিদি। তিনি বলেন, ‘ছেলে, তোমার জন্মের আগ থেকে আমি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করছি।’

এর আগে ১৯৭ রানের লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নেমেছিল গল। গলের ব্যাটসম্যানদের উইকেট আসা-যাওয়ার মধ্যে অধিনায়ক আফ্রিদির দিকেই তাকিয়ে ছিল দল। কিন্তু ৬ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে প্রথম বলেই ফিরেছেন শূন্য রানে।

নিজে ব্যর্থ হয়েছেন, দলও টানা তিন ম্যাচ হেরেছে। এতে স্বভাবতই মন খারাপ আফ্রিদির। এর পর আবার স্বদেশী একজনকে আফগানিস্তানের এক তরুণের কাছে অপদস্থ হতে দেখছেন। তাই রাগটা আর সামলাতে পারেননি।

ম্যাচ শেষে দুই খেলোয়াড়ের মধ্যে এই ঘটনা জানা গেছে সাজ সাদিকের সুবাদে। পাকিস্তান ক্রিকেটের ব্যাপারে অন্যতম বিশ্বস্ত এই সাংবাদিক টুইটে লিখেছেন– ম্যাচ শেষে শহীদ আফ্রিদি ও আফগানিস্তানের ২১ বছর বয়সী নাভিন-উল-হকের মধ্যে উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। আফ্রিদি বলেন, ‘ছেলে, তোমার জন্মের আগ থেকে আমি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করছি।’

বেশিরভাগই নাভিনকে দায়ী করলেও সিনিয়র খেলোয়াড় আফ্রিদির এমন আচরণেও দোষ খুঁজে পেয়েছেন কেউ কেউ।

Author: Rijvi Ahmed

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *