খোঁজ মিলল বনের দুরন্ত মোগলির

জাকার্তায় দেখা গেল সেই গল্পের মোগলিকে। বনের হিংস্র প্রাণীদের সঙ্গে যার ছিল দারুণ সখ্য। ঠিক এমনই ২১ বছর বয়সী এলি সারাদিন জঙ্গলে থেকে ঘাস-পাতা কিংবা কলা খাওয়ার অভ্যেস। বাড়ির রান্না মুখেও দেয় না সে। আর মা-বাবা ছাড়া অন্য কোনও মানুষ দেখলেই এক দৌড়ে জঙ্গলে। এভাবেই বনের মধ্যেই সারাদিন ছোটাছুটিতে দিন চলে যায়।

ছোটবেলা থেকে বিরল রোগে ভুগতে থাকা এলি যেন রুডইয়ার্ড কিপলিংয়ের গল্পের সেই ‘‌মোগলী’। সভ্য জগত থেকে দূরে জঙ্গলের পশুদের কাছে থেকেই বড় হয়। আর আশ্চর্যের, এলির স্বভাবও পুরোটাই মোগলির মতোই।‌

এলি তার মা-বাবার ষষ্ঠ সন্তান। এর আগে পাঁচ সন্তান জন্মানোর পরই মারা যায়। তাই এলি তাদের কাছে ঈশ্বরের আশীর্বাদ স্বরূপ। কিন্তু এই সন্তানই ছোট থেকে বিরল রোগে আক্রান্ত। লতাপাতা, কলা, ফল খেয়েই দিন কেটে যায় তার।

গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এলির মা জানান, ছোট থেকেই ছেলে বিরল রোগে আক্রান্ত। কথা বলতে পারে না। সাধারণ মানুষের মতো খাবার পছন্দ করে না। কলা খেতেই তার ভালো লাগে। অন্য কিছুই পারে না। কেবল দৌড়াতেই ভালো জানে। বলেন, কোনও মানুষকেই পছন্দ করেন না এলি। কেউ ধারেকাছে ঘেঁষার চেষ্টা করলেই এক দৌঁড়ে বনের ভেতর। ওর পেছনে আমাকেও ছুটতে হয়। না হলে ছেলে কোনো দিন বাড়ি ফিরবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *