অভাবে সন্তানকে দত্তক দেয়া সেই শেফালীর পাশে দাড়ালো ইউএনও

অভাবে সন্তান দত্তক দেওয়া সেই শেফালীর পাশে দাঁড়িয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। রবিবার কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় উপজেলার প্রশাসনের পক্ষ থেকে করতোয়ারপাড় গ্রামে অসহায় শেফালীর মায়ের বাড়িতে গিয়ে একটি ছাগল ও নগদ অর্থ প্রদান করেন ইউএনও মোসা. নূরে-এ-জান্নাত রুমি। এ ছাড়াও এমজেএসকেএস নামের একটি এনজিও তাকে হাঁস ও মুরগি দিয়ে সহায়তা করে।

উল্লেখ্য, গত ৮ বছর আগে উপজেলার থেতরাই ইউনিয়নের গোড়াইপিয়ারের বাসিন্দা আনিছুর রহমানের সাথে দলদলিয়া ইউনিয়নের করতোয়ারপাড় গ্রামের শেফালীর বিয়ে হয়। পরপর দুটি কন্যাসন্তান জন্ম দেওয়ায় শেফালীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে গুরুতর আহত অবস্থায় বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় আনিছুর। পরে তাদের ছেড়ে ঢাকা যায় চলে য়ায় আনিছ। আর যোগাযোগ করেননি। এরপর থেকে অসহায় শেফালীর দিন কাটে অনাহারে-অর্ধাহারে। পরে অভাবের তাড়নায় ১৫ মাস বয়সী একটি মেয়ে সন্তানকে দত্তক দেন তিনি। গত ২৬ নভেম্বর ‘অভাবে মেয়েকে দত্তক’ শিরোনামে কালের কণ্ঠে প্রিন্ট ও অনলাইনে সংবাদ প্রকাশ হলে তাকে সহায়তায় এগিয়ে আসে স্থানীয় প্রশাসন।

Author: Rijvi Ahmed

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *