মাদ্রাসায় পড়া দরিদ্র সেই ছেলেটি আজ কোটি টাকা বেতনের ইঞ্জিনিয়ার

বর্তমান প্রজন্মের কাছে গুগলে চাকরি যেন একটি স্বপ্ন। সেই স্বপ্ন পূরণ করতে কত পরিশ্রম, কত সাধনা। তবুও মেলেনা স্বপ্নের দেখা। দেশের বাঘা বাঘা স্কুলে পড়ালেখা করেও যে স্বপ্ন অধরাই থেকে যায় সেই স্বপ্নই পূরণ হয়েছে মাদ্রাসা থেকে উঠে আসা এক ছাত্রের। বলছিলাম সদ্য গুগলের ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে যোগ দেওয়া নাদিমুল আবরারের কথা। আবরার ফেনীর জামিয়াতুল ফালাহিয়া মাদ্রাসা থেকে দাখিল পর্যন্ত পড়ালেখা

করেন। এরপর বাবার কর্মস্থল কুশিল্লায় চলে যান। সেখানে ইস্পাহানি পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। উচ্চ মাধ্যমিক শেষে ভর্তি হন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে। চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার আবদুল কাদেরের সন্তান তিনি গত শুক্রবার পোল্যান্ডগুগলের ওয়ারশ অফিসে ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে যোগ দেন আবরার। বুয়েট থেকে পাশ করার

সাথে সাথে সিঙ্গাপুরের একটি কোম্পানি এবং গুগল থেকে চাকরির প্রস্তাব পান তিনি। এরমধ্যে গুগলকেই বেছে নেন আবরার। তার চাচা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এনাম-উল হক এসব তথ্য জানান। ড. এনাম-উল হক জানান, মাদ্রাসায় পড়া অবস্থাতেই মেধার স্বাক্ষর রাখে আবরার। মাদ্রাসায় পড়ালেখার কারণে তার কৈশোর কেটেছে ফেনীতে। বলতে গেলে ফেনী তাদের সেকেন্ড হোম। আবরারের

দাদা সীতাকুণ্ড এলাকার বিখ্যাত আধ্যাত্মিক সাধক ও পীর প্রফেসর নূরুল আবছার। বাবার চাকরির সুবাদে আবরারের শৈশব কেটেছে কুমিল্লায়। তার বাবা আবদুল কাদের বর্তমানে কুমিল্লা বার্ডের পরিচালক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *