বউ ফেলে বিয়ের আসর থেকে দৌঁড়ে পালালেন বর

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে ১৬ বছর বয়সী এক স্কুলছাত্রীর বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার অপরাধে কনের বাবাকে পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

এ সময় কনের বাড়িতে ম্যাজিস্ট্রেট যাওয়ার খবর পেয়ে রাস্তা থেকে দৌড়ে পালিয়েছেন বর ও বরযাত্রীরা। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে লক্ষণপুর গ্রামের তফাদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটেছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া ওই ছাত্রী বর্তমানে লেখাপড়া বন্ধ করে বাড়িতে থাকত। পারিবারিকভাবে পাশের বদলকোর্ট ইউনিয়নের তার বিয়ে ঠিক করা হয়। বৃহস্পতিবার বিয়ের দিন ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে চাটখিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু সালে মোহাম্মদ মোসা অভিযান চালান। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের খবর পেয়ে রাস্তা থেকে পালিয়ে যান বর ও বরযাত্রীরা।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী হাকিম আবু সালে মোহাম্মদ মোসা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মেয়েকে বাল্যবিয়ে দেওয়ার অপরাধে তার বাবা আলি আহম্মদকে পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়েছে। একই সঙ্গে ১৮ বছরের আগে মেয়েকে বিয়ে দেবেন না এ মর্মে পরিবারের কাছ থেকে অঙ্গীকারনামা নেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *