পুলিশের ইউনিফর্মে হিজাব যুক্ত করল নিউজিল্যান্ড

ইসলাম ধর্মাবলম্বী নারী পুলিশ সদস্যদের ইউনিফর্মের সঙ্গে হিজাব পরার অনুমতি দিয়েছে নিউজিল্যান্ড। এ বাহিনীতে সদ্য যোগ দেয়া কনস্টেবল জিনা আলী হচ্ছেন দেশটির প্রথম হিজাব পরিহিতা পুলিশ সদস্য।

নিউজিল্যান্ড পুলিশের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, দেশটিতে বিদ্যমান বৈচিত্র্যময় সম্প্রদায়ের প্রতিচ্ছবি হিসেবে সর্বাত্মক সেবা চালুর লক্ষ্যেই এ পদক্ষেপ নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

নিউজিল্যান্ড ছাড়া লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ এবং পুলিশ স্কটল্যান্ডের ইউনিফর্মেও হিজাব পরার অনুমতি রয়েছে।

২০০৬ সালে যুক্তরাজ্যের লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ ইউনিফর্মে হিজাব যুক্ত করে। ২০১৬ সালে একই পথ অনুসরণ করে পুলিশ স্কটল্যান্ড। ২০০৪ সালে অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া পুলিশের সদস্য মাহা সুক্কার তার ইউনিফর্মের সঙ্গে হিজাব পরতেন।

নিউজিল্যান্ড পুলিশ জানিয়েছে, ২০১৮ সালের দিকে তারা ইউনিফর্মের সঙ্গে হিজাব যোগ করা প্রক্রিয়া শুরু করে।

কনস্টেবল জিনা শুধু দেশটির প্রথম হিজাব পরিহিতা পুলিশ সদস্যই নয়, এ প্রক্রিয়ার উন্নয়নেও সক্রিয় অংশগ্রহণের সুযোগ পাচ্ছেন তিনি।

জানা যায়, কনস্টেবল জিনা আলীর জন্ম দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশ ফিজিতে। সেখান থেকে ছোটবেলাতেই নিউজিল্যান্ডে পাড়ি জমান তিনি। গতবছর ক্রাইস্টচার্চে ভয়াবহ হামলার পরে পুলিশে যোগ দেয়ার ভাবনা মাথায় আসে জিনার।

তিনি বলেন, আমি বুঝতে পারি, আরও মুসলিম নারীদের পুলিশে যোগ দেয়া এবং মানুষকে সহায়তা করা দরকার।

নিউজিল্যান্ড পুলিশের এ কনস্টেবল বলেন, নিউজিল্যান্ড পুলিশের ইউনিফর্মের অংশ হিসেবে হিজাব দেখাতে পারার অনুভূতি খুবই অসাধারণ। আমার মনে হয়, এটা দেখে আরও মুসলিম নারী পুলিশে যোগ দিতে চাইবে।

সূত্র: বিবিসি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *