টাকাওয়ালা না, খুব সাধারণ গরীব ছেলেকে বিয়ে করতে চান অভিনেত্রি তিশা

‘বিয়ে নিয়ে এখনই কিছু ভাবছি না। যদিও একা থাকতে থাকতে আমি ক্লান্ত হয়ে গেছি। মাঝেমধ্যে এটাও ভাবি একাকী জীবন ভালোই লাগে। শুধু ফেসবুকে চারপাশের মানুষের বিয়ের পোস্ট দেখলে মনে হয় আমারও বিয়ে করা উচিত।’ কথাগুলো বললেন ছোট পর্দার অভিনেত্রী তাসনুভা তিশা। বিয়ে প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি আরও জানান, ভবিষ্যতে বিয়ের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করলেও আগের মতো ভুল সিদ্ধান্ত তিনি নিতে চান না। মনের মতো জীবনসঙ্গীর জন্য অপেক্ষা করতে প্রস্তুত তিনি।

তিনি বলেন, ‘বিয়ে করব এটা নিয়ে তো লুকানোর কিছু নেই।’ মানুষের জীবনে তো বিভিন্ন ঘটনা ঘটে। তেমন একটি ঘটনা তাঁর জীবনেও ঘটেছে। সে সময় বেশ কষ্টও পেয়েছিলেন তিনি। দুই সন্তান সেই কষ্ট অনেকটাই ভুলিয়ে দিয়েছে।

বিচ্ছেদের পর কাজ কমিয়ে দিলেও ছেলেমেয়ের ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে কিছুদিন বিরতি দিয়ে সেবারই আবারও কাজে নিয়মিত হয়েছেন তাসনুভা। নিজেকে গুছিয়ে এনেছেন। নির্মাতাদের কাছে তিনি এখন আস্থার নাম।

নিয়মিত অভিনয় চালিয়ে গেলেও আবারও ঘর সংসার করবেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বিয়ে তো একটা সময় করতেই হবে। সেটা এই মুহূর্তে না। বিয়ের জন্য একটু সময় নিতে চাই। আগে বিয়ে করে যে পরিমাণ কষ্ট পেয়েছি, এখন আর সাহস পাই না। তা ছাড়া বিশ্বাস করার মতো কাউকে পাচ্ছি না।’

কয়েক বছর আগে এই অভিনেত্রী ভালোবেসে বিয়ে করেন। শুরুতে বিয়ের খবর গোপন রাখেন তিনি। সেই বিয়ের খবর প্রকাশ করেন পরের বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে। হঠাৎ করেই চার বছর পর তাঁদের বিবাহবিচ্ছেদের খবর জানা যায়। নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়ার সমস্যা দিনের পর দিন চলতে থাকায় তিনি বাধ্য হয়ে তালাকের মতো সিদ্ধান্ত নেন। তখন থেকেই এই অভিনয়শিল্পী দুই সন্তান নিয়ে পরিবারের সঙ্গে থাকেন।

এই অভিনেত্রী জীবনসঙ্গী হিসেবে যেমন মানুষ চান, তেমন মানুষ তাঁর চোখে এখনো পড়েনি। মনের মতো মানুষ না পাওয়া পর্যন্ত বিয়ের কথা মুখে আনতে চান না তিনি।

তাসনুভা তিশা মনে করেন, বিয়েটা বোঝাপড়ার বিষয়। নিজেদের মধ্যে সবার আগে ভালো বোঝাপড়া জরুরি। ভবিষ্যতে বিয়ের ক্ষেত্রে তিনি আর ভুল সিদ্ধান্ত নিতে চান না। তিনি বলেন, ‘একবার ভুল করেছি, দ্বিতীয়বার একই ভুল করতে চাই না। এ জন্য বিয়ে করতে ভয় পাচ্ছি। প্রয়োজনে আমি আরও পাঁচ বছর অপেক্ষা করতে চাই। কিন্তু আমার মনের মতো একটা পাত্র চাই, যাঁকে আমি বুঝব আর সেও আমাকে বুঝতে পারবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিয়ে করার ক্ষেত্রে আমার চাহিদা খুব বেশি না। টাকাওয়ালা না, খুব সাধারণ একটি ছেলেকে বিয়ে করব, যাঁর সঙ্গে আমার মানসিকতা মিলবে। দিন শেষে আমাদের ভালো বোঝাপড়া থাকবে।’ কথা শেষে তাসনুভা তিশা জানান, বাসা থেকে বিয়ের কথা বললেও সে ক্ষেত্রে তাঁর স্বাধীনতা রয়েছে। ছেলে পছন্দ হলে সেরে ফেলতে পারেন বিয়েটা। সম্প্রতি তিশা অভিনীত একটি ওয়েব সিরিজ বেশ আলোচনায় আসে।

ফলে ছোট পর্দা এবং অনলাইনে বাড়তি ব্যস্ততা যুক্ত হয় তাঁর। তবে সংখ্যা বাড়ানোর চেয়ে কাজের মানকেই তিনি গুরুত্ব দিচ্ছেন। ব্যস্ততার ফাঁকে সন্তানদের নিয়মিত সময় দেন এই অভিনেত্রী। তাঁর বড় মেয়ে ইসরাত রাইয়ান এ বছর পা রেখেছে ১১ বছরে, ছেলে ফারাজ মুতাজ্জিমের বয়স ৭ বছর।

সবার আগে তিনি সন্তানদের মানুষের মতো মানুষ করতে চান। সম্প্রতি তিশা শেষ করেছেন ‘ট্রাভেলিং টু হোম’ নাটকের শুটিং। নাটকটিতে আরও অভিনয় করেছেন সালমান মুক্তাদির, তৌহিদ আফ্রিদি, হিমি প্রমুখ। এখন তাঁর হাতে রয়েছে ১০টির মতো নাটকের কাজ। নির্মাতা মোস্তফা কামাল রাজের ‘লাল খাম বনাম নীল খাম’ নাটক দিয়ে অভিনয়জীবনের শুরু এই তারকার। নাটকের পাশাপাশি বিজ্ঞাপনচিত্র আর গানের ভিডিওতে অভিনয় করেও অল্প সময়েই নির্মাতাদের পছন্দের তালিকায় জায়গা করেন নেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *