মা নাটকের সেই ঝিলিক এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলে ভাইরাল

টেলি অভিনেত্রী তিথি বসু, এই নামে তাঁকে অধিকাংশ মানুষ অবশ্য চেনেন না। তিথির ভক্তরাও তাঁকে ঝিলিক বলেই সম্বোধন করতে বেশি ভালবাসে।

এই তিথিই হল জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘তোমায় ছাড়া ঘুম আসে না, মা’-এর ছোট্ট ঝিলিকই হল তিথি। সেই ছোট্ট ঝিলিক এখন রীতিমত বড় হয়ে গিয়েছে।

ছোটবেলার মিষ্টতা এখনও আছে ঠিকই তবে বয়সের সঙ্গে বোল্ডনেসের মাত্রা ছাড়িয়েছেন তিথি। ইনস্টাগ্রামে তিথি অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের চেয়ে অনেক বেশি অ্যাক্টিভ।

ইনস্টাগ্রামে প্রায় নিত্যদিন ছবি পোস্ট করেন অভিনেত্রী। এবার সাবেকিয়ানায় ধরা দিলেন তিথি। হলুদ রঙের শাড়িতে ক্যানডিড পোজ। আটপৌড়ে, ব্লাউজ ছাড়া শাড়ির সাজে সেজে উঠেছেন।

যা দেখেই লাইকের বন্যা পোস্টে। এই ধরণের এখাধিক পোস্টই করে থাকেন তিনি। ছবি পোস্টের মাধ্যমেই তাঁর মধ্যে যে কোথাও একটা ফ্যাশানিস্তা লুকিয়ে আছে তা বোঝা যায়।

নানা ছবিতে, বিভিন্ন ধরনের ফ্যাশানেবল পোশাকে দেখা যায় তাঁকে। যা দেখে জেন এক্সের বহু মেয়েরাই অনুসরণ করে চলেছে তিথিকে। তারা কমেন্ট সেকশনে প্রায় লেখে, তিথির মত ফ্যাশন সেন্স অধিকাংশ অভিনেত্রীরই নেই।

তাঁর ছবিগুলি ভাইরাল হতেই একাধিক অ’শ্লীল মন্তব্যে ভরছে সোশ্যাল মিডিয়া। ফেক অ্যাকাউন্ট খুলে সেখান থেকে তিথিকে স্লাটশেমও করা হয়েছে।

যদিও কোনও মন্তব্যের জবাব দেননি তিথি। তবে তাঁর ভক্তরা বেশ চটেছে। তাদের কথায়, তিথি বোল্ড ছবি আপলোড করতেই পারেন তাতে কেন কারও আপত্তি থাকবে।

আপত্তি থাকলেও এমন অশ্লীল মন্তব্য কেন করা হবে। তবে সেই কয়েকজন নেটিজনেরা ক্রমাগত ট্রোল এবং স্লাটশেম করেই চলেছে তিথিকে।

প্রসঙ্গত, ফ্যাশনের পাশাপাশি ভক্তদের তিথির আরও একটি বিষয়ও বেশ পছন্দ। সোশ্যাল মিডিয়াতে তিথি নিজের স্টারডম পুরোপুরি ভুলে যান। তিনি ব্যক্তিগত জীবনে যেমন, তেমনই সোশ্যাল মিডিয়ার ফিডেও।

সৌন্দর্য ছাড়াও বোল্ডনেসে তিথিকে দশে দশ দিয়ে দেওয়ার জোগাড় ফোলয়াড়দের। জিনস-শার্টে হোক বা শাড়িতে সবেতেই সাবলিল তিথি। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে যে তিথির সাহসিকতাও ক্রমশ বেডডে চলেছে তার প্রমাণ হল এই ছবিগুলিই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *