পানির নিচে হানিমুন করছেন জনপ্রিয় নায়িকা কাজল, প্রতিরাত খরচ ৩৩ লাখ টাকা

মধুচন্দ্রিমায় যাচ্ছেন সদ্য বিবাহিতা বলিউড তারকা কাজল আগারওয়াল। শনিবার ইনস্টাগ্রামে পাসপোর্ট আর ব্যাগের ছবি দিয়ে জানান তিনি। কিন্তু কোথায়, সেটা গোপন রেখেছিলেন। রোববার আর ভক্তদের না জানিয়ে থাকতে পারেননি কোথায় কাটছে তাঁর মধুর সময়গুলো। একের পর এক ছবিগুলো প্রকাশ করে কাউকে ঈর্ষায় আর কাউকে আফসোসে ভাসিয়ে দিলেন কাজল। বরকে নিয়ে তিনি এখন আছেন মালদ্বীপের কনরাড দ্বীপে।

সমুদ্রের মাঝখানে একটা অবকাশযাপন কেন্দ্র থেকে ছবি পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী কাজল আগারওয়াল ও তাঁর স্বামী গৌতম কিসলু। লাল বিচ গাউনে কাজলকে জড়িয়ে রেখেছেন গৌতম। ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘সুন্দর তুমি’। আরেকটি ছবিতে কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিসের ছবি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘সৈকতে আমার কিছু প্রয়োজনীয় জিনিস’।

মালদ্বীপে পৌঁছে বিলাসবহুল অবকাশযাপন কেন্দ্রের ছবি শেয়ার করেছেন গৌতম। গৌতম লিখেছেন, ‘বেড়াতে বের হয়ে খুব সৌভাগ্যবান মনে হচ্ছে। অবশ্য সতর্কতার সঙ্গেই বের হয়েছি। ধীরে ধীরে স্বাভাবিক দিনে ফিরছি…।’ ইনস্টাগ্রামে বিমানের ককপিটের ছবিও শেয়ার করেছেন গৌতম। সেখানে মজা করে লিখেছেন, ‘বিকল্প জীবিকা’।

ইনস্টাগ্রাম দেওয়া ছবিতে কিসলু ও কাজল জানিয়েছেন, তাঁরা মালদ্বীপে রাঙ্গালি আইল্যান্ড রিসোর্টে আছেন। এ হোটেল মালদ্বীপের রাঙ্গালি দ্বীপে পানির নিচে অবস্থিত।

এখানেই তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম অর্ধনিমজ্জিত জাদুঘর। সমুদ্র থেকে প্রায় ১৬ ফুট নিচে কনরাড মালদ্বীপ রাঙ্গালি আইল্যান্ড হোটেলের ভেতরে আছে কাচঘেরা একটি রেস্তোরাঁ। যেখানে বসে সামুদ্রিক প্রাণীদের চলাফেরা দেখা যায়। সমুদ্রের নিচে ১৮০ ডিগ্রি প্যানারমিক ভিউতে বসে রেস্টুরেন্টের খাবারের তালিকা অনুযায়ী মালদ্বীপের গলদা চিংড়ি আর পশ্চিমা খাবার খাওয়া যায়। এই হোটেলে এক রাত থাকতে খরচ করতে হয় প্রায় ৫০ হাজার ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় ৩৩ লাখের বেশি।

প্রসঙ্গত, গত জুন মাসে আংটিবদল সেরেছিলেন কাজল আগারওয়াল ও গৌতম কিসলু। এরপর গত ৩০ অক্টোবর ধুমধাম করে তাঁদের বিয়ে হয়। প্রায় তিন বছর প্রেম করার পর বিয়ে করেছেন তাঁরা।

২০০৪ সালে ‘কিউ হো গায়া না’ ছবিটি দিয়ে বলিউডে যাত্রা শুরু কাজল আগারওয়ালের। কাজের দিক থেকে কাজলকে তামিল ও তেলেগু ছবিতে বেশি দেখা গেছে। তবে বলিউডের বেশ কয়েকটি ছবিতে কাজ করেছেন তিনি।

অজয় দেবগনের সঙ্গে ‘সিংঘাম’ ছবিতে অভিনয় করেছেন কাজল। এ ছাড়া ‘স্পেশাল ২৬’, ‘নায়ক’, ‘রণরঙ্গম’, ‘মগধিরা’র মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন। শেষ তাঁকে ‘কোমালি’ ছবিতে দেখা গিয়েছিল। ‘সিংঘাম’ সিনেমার পরিচালক রোহিত শেঠির সঙ্গে প্রেমের গুজব রটেছিল কাজলের, এমনকি প্রভাসের সঙ্গেও। অবশ্য এসব নিয়ে কখনো মুখ খোলেননি তিনি।

বরং গত মার্চ মাসে ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও কথা বলেছেন কাজল। নিজেকে কীভাবে উৎফুল্ল রাখেন, এমন প্রশ্নে কাজল জানিয়েছেন, তিনি স্পা করেন, যা যা ভালো লাগে, সেসব খাবার খান। রান্না করতেও খুব ভালোবাসেন তিনি। প্রায়ই তিনি থাই খাবার আর রাজমা চাওয়াল বানান। আর যখন দুশ্চিন্তায় থাকেন, তখন বিস্কুট বানাতে বসে যান। ওভেন থেকে গরম বিস্কুট বের করার সঙ্গে সঙ্গে দুশ্চিন্তা ফুড়ুৎ করে উড়ে যায় তাঁর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *