বাচ্চার ছবি দেখে বুবলীকে নিয়ে সেই গুঞ্জন আরও জোরালো হল!

ঢাকাইয়া চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম বুবলী। শাকিব খানের সঙ্গে অভিনয়ে করে দর্শকপ্রিয়তা পান তিনি। ক্যারিয়ারে যখন বসন্তের বাতাস বইছে, ঠিক তখনই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না তাকে। হঠাৎই যেন উধাও হয়ে গেছেন তিনি! এছাড়া বুবলীর মুঠোফোনেও তাকে পাওয়া যায়নি।

দীর্ঘদিন আড়ালে থাকা এই নায়িকার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এখন শোভা পাচ্ছে এক শিশুর ছবি। তবে এই ছবি পোস্ট করার পেছনেও কারণ রয়েছে। ছবিটির সঙ্গে সচেতনতামূলক একটি পোস্ট দিয়েছেন বুবলী। এই পোস্টে ‘ইরা’ নামে এক শিশুর গল্প বলেছেন বুবলী। এতে তিনি বোঝাতে চেয়েছেন শিশুদের আনন্দ দেয়ার জন্য আকাশে তুলে ছেড়ে দিলে ভয়ংকর বিপদ ডেকে আনতে পারেন।

বুবলী সংগৃহীত এই পোস্টে লিখেছেন- বাচ্চাদের আকাশে তুলে আবার কোলে নিয়ে আমরা অনেক আনন্দ পাই। বাচ্চারাও পায়। কিন্তু বাচ্চাদের শরীরের অঙ্গ প্রত্যঙ্গ ম্যাচিউর হতে অনেকদিন সময় লাগে। খুব সহজেই সেগুলো আঘাতপ্রাপ্ত হতে পারে। হাত ফসকে পড়ে গিয়েও ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। ইরাকে যখন বারবার উপরে তোলা হচ্ছিল, তখন গ্রাভিটির এগেইনস্টে তাকে বারবার উপরে তোলায় তার মস্তিষ্কের সঙ্গে মাথার খুলির হাড্ডির বারবার ধাক্কা লাগছিল।

শিশুর মস্তিষ্ক ও হাড্ডি দুটোই নরম। বিষয়টি উল্লেখ করে লিখেন, যেহেতু শিশুর মস্তিষ্কটাও নরম আর মাথার হাড্ডিটাও নরম তাই হাড্ডির সঙ্গে বারবার ধাক্কা লেগে তার মস্তিষ্কের ধমনী ছিড়ে যায়। ধমনী শিরাতে রক্ত চলাচল করে। মস্তিষ্কের ধমনী ছিড়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয় মাথার ভেতরে। রক্তে থাকে গ্লুকোজ। গ্লুকোজ না পেলে মস্তিষ্ক ৪-৫ মিনিটের ভেতর মারা যায়। সাথে জীবন্ত মানুষটাও। রক্ত সব ধমনী দিয়ে বের হয়ে আল্টিমেটলি মস্তিষ্ক ডেথ হয় ছোট্ট ইরার। তাই এসব ব্যাপারে জানুন, সতর্ক হোন, নিজে বাঁচুন, আপনার প্রিয়জনকেও বাঁচান।

অন্তঃসত্ত্বা অনেক নারীই তাদের ফেসবুক প্রোফাইলে বা পোস্টে শিশুদের ছবি পোস্ট করেন। আবার শিশুদের নিয়ে সচেতনতামূলক পোস্ট করে থাকেন। বুবলীর ক্ষেত্রেও এমনটা হয়েছে কি না তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা!

তবে বুবলী বিভিন্ন সময় জানিয়েছেন, বিয়ে করলে ঢাকঢোল পিটিয়ে সবাইকে জানিয়ে করবেন। প্রায় এক বছর ধরে বুবলী চলচ্চিত্রাঙ্গন থেকে দূরে রয়েছেন। এমনকি চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরাও তার খোঁজও জানেন না। এদিকে বুবলীর মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চিত্রপুরীর অনেকেই অপু বিশ্বাসের উদাহরণ টানছেন। দীর্ঘ দিন অজ্ঞাতবাসের পর হঠাৎ সন্তান কোলে নিয়ে ক্যামেরার সামনে এসেছিলেন অপু বিশ্বাস। নানা মুনি নানা মত দিলেও সত্যটা এখনো আড়ালে। আর এজন্য অপেক্ষা ছাড়া বিকল্প কিছু নেই!

সর্বশেষ তড়িগড়ি করে ‘ক্যাসিনো’ সিনেমার শুটিং শেষ করেন এই বুবলী। তার অংশের শুটিং, ডাবিং শেষ করেছেন। কিন্তু এখনো অন্যান্য শিল্পীদের ডাবিং বাকি আছে। খুব শিগগির ডাবিং শেষ করবেন বলে জানিয়েছেন নির্মাতা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *