কাপড় সেলাইয়ের কাজ করেও ‘গোল্ডেন জিপিএ ৫’ পেয়েছে জুই

পড়াশোনার পাশাপাশি ছেলে-মেয়েদের কাপড় তৈরি করেও এ বছর এসএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ ৫ পেয়েছে ঈশাত জাকিরুল জুই। চরম অর্থসঙ্কট রুখতে পারেনি পিতৃহীন জুইয়ের সাফল্যকে। সে উল্লাপাড়ার এইচ. টি. ইমাম গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের পরিক্ষার্থী হিসেবে এ বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। জুই উপজেলার বেতবাড়ী গ্রামের মৃত জাকিরুল ইসলামের মেয়ে। তার বাবা সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার পর তাদের সংসারে নেমে আসে অভাব অনটন। নানীর

বাড়িতে থাকতে হয় জুইয়ের। পঞ্চম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় থেকেই সে সেলাই মেশিনে ছেলে-মেয়েদের জামা-কাপড় তৈরির আয়ে লেখাপড়ার খরচ চালায়। জুই আগেও পিএসসি এবং জেএসসি পরীক্ষাতে জিপিএ ৫ পেয়েছিল। ঈশাত জাকিরুল জুইয়ের নানী মোছা. রেহানা বেগম জানান, জুইদের বাড়ির ভিটে ছাড়া আর কোনো জমি নেই। খেয়ে না খেয়ে অনেক কষ্ট করে লেখাপড়া করছে সে। জুইয়ের ছোট ভাই নাঈম মার্চেন্ট পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে আষ্টম শ্রেণিতে পড়ে। জুই স্কুলের সময় ছাড়া

লেখাপড়ার পাশাপাশি কাপড় তৈরি করে। যে টাকা পায় তা দিয়ে নিজের সংসার চালিয়ে নিজের ও ভাইয়ের লেখাপড়ার খরচ চালাতো। উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে জুইয়ের বড় বাধা হলো দারিদ্রতা। জুই জানায়, ভবিষ্যতে সে ডাক্তার হতে চায়। কিন্তু চরম অর্থনৈতিক সঙ্কটের কারণে তার লালিত স্বপ্ন কিভাবে পূরণ হবে- এটাই এখন তার বড় ভাবনা। এইচ. টি. ইমাম গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, ঈশাত জাকিরুল জুই অত্যন্ত মেধাবী ছাত্রী। অনেক কষ্ট ও সংগ্রাম করে সে তার অস্বচ্ছল পরিবার থেকে লেখাপড়া করে এসএসসিতে ভালো রেজাল্ট করেছে। মেয়েটি খুবই সৎ ও বিনয়ী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *