ডিমের খোসা কি ফে’লে দিচ্ছেন? এর উপকারিতা জা’নলে অ’বাক হবেন!

এখন যে সময় তাতে ফে’লে দেয়ার মত জিনিস খুব কমই পাওয়া যায়। কারন মানুষের জ্ঞানের পরিধি দিনে দিনে এত বাড়ছে যে ফে’লে দেয়ার বস্তু দিয়েও উপকারী কিছু বানিয়ে ফেলছে নিমিষেই। প্রত্যেক প্রাকৃতিক উপাদানের কিছু গুণ আছে,যা অনেক উপকারী। শুনলে অ’বাক হবেন, এই উপাদান ত্বককে সু’স্থ রাখতে বেশ কা’র্যকর। ডিমের খোসাও তেমনি একটি জিনিস।

চলুন তাহলে দেখে নেওয়া যাক ডিমের খোসা কিভাবে ব্যবহার করবেনঃ-

তারুণ্য ধ’রে রাখেঃ এক টেবিল চামচ ডিমের সাদা অংশের স’ঙ্গে এক চা চামচ গুড় ও একটি ডিমের খোসা গুঁড়া করে একস’ঙ্গে মিশিয়ে মুখে লা’গান। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের বয়সের ছাপ কমিয়ে তারুণ্য ধ’রে রাখতে সাহায্য করে।

কালচে ভাব দূ’র করেঃ একটি ডিমের সাদা অংশের স’ঙ্গে এক টেবিল চামচ ডিমের খোসার গুঁড়া মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাক মুখে লা’গিয়ে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের কালচে দাগ সহজেই দূ’র করবে।

ত্বকের সং’ক্রমণ দূ’র করেঃ ডিমের খোসা ভালো করে গুঁড়া করে নিন। এবার এক কাপ আপেল সিডার ভিনেগারের মধ্যে এই গুঁড়া কয়েক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখু’ন। এরপর এই প্যাক পুরো মুখে লা’গিয়ে কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার ত্বকের সং’ক্রমণ জাতীয় স’মস্যার দ্রুত সমাধান হবে।

ত্বক প’রিষ্কার করেঃ তিন টেবিল চামচ ডিমের খোসার গুঁড়ার স’ঙ্গে এক টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে মুখে লা’গান। শুকিয়ে গেলে ভালো করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বক প’রিষ্কার ও দাগহীন হবে।

বলিরেখা দূ’র করেঃ এক টেবিল চামচ চিনির স’ঙ্গে ডিমের সাদা অংশ ও ডিমের খোসার গুঁড়া মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এবার এই প্যাক মুখে লা’গিয়ে শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এতে সহজেই ত্বকের বলিরেখা দূ’র হবে।

ত্বক নরম করেঃ অ্যালোভেরার রসের স’ঙ্গে ডিমের খোসার গুঁড়া মিশিয়ে ত্বকে হালকাভাবে ম্যাসাজ করুন। এটি ত্বকের র’ক্ত সঞ্চালন বাড়াতে সাহায্য করে এবং ম’রা কোষ দূ’র করে ত্বককে নরম ও মসৃণ করে।

Author: Rijvi Ahmed

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *