এগিয়ে যাচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়

ফিলিপাইনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বিশ্বের বৃহত্তম ঘূর্ণিঝড়। দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় লুজন দ্বীপে এটি আঘাত হানতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ক্যাটাগরি-৫ এর ঘূর্ণিঝড় ‘গনি’ সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে শনিবার কয়েক লাখ মানুষকে অন্যত্র সরে যাওয়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

ঘণ্টায় ২১৫ কিলোমিটার গতির ঘূর্ণিঝড় গনির কারণে রবিবার ভূমিধস হতে পারে। ২০১৩ সালের নভেম্বরে আঘাত হানা হাইয়ানের পর এটিই সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়। ওই সময় ৬ হাজার ৩০০ জনের বেশি মানুষের প্রাণহানি হয়েছিল।

উপকূলীয় ও ভূমিধসপ্রবণ এলাকা থেকে মানুষকে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা গ্রেমিল নাজ।

গত সপ্তাহে ঘূর্ণিঝড় মোলাভের আঘাতে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছিল। বেশিরভাগই ছিলেন রাজধানী ম্যানিলার দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশের বাসিন্দা। ঘূর্ণিঝড় গনিও একই পথ ধরে এগিয়ে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

করোনা পরিস্থিতির মধ্যে লোকজনকে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হিমশিম খাচ্ছে কর্তৃপক্ষ। স্থানীয় কর্মকর্তারা বন্দরের সব কার্যক্রম, মাছ ধরা ও নৌকা চালানো বন্ধ ঘোষণা করেছেন।

প্রশান্ত মহাসাগর থেকে পশ্চিম দিকে ঘণ্টায় ২০ কিলোমিটার গতিতে আগাচ্ছে ঘূর্ণিঝড় গনি। শনিবার সন্ধ্যায় ম্যানিলা ও আশেপাশে ১৪ টি প্রদেশে বৃষ্টি, বন্যা ও ভূমিধসের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *