দাড়ি কাটায় রাজি হওয়ায় ফিরে পেলেন চাকরি

দাড়ি রাখার কারণে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয় ভারতের উত্তরপ্রদেশের উপপরিদর্শক (এসআই) ইন্তেসার আলী। পরে চাকরি ফিরে পাওয়ার জন্য আবেদনও করেছিলেন তিনি। তবে কোনো লাভ হয়নি। শেষ পর্যন্ত দাড়ি কাটতে রাজি হওয়ায় চাকরি ফিরে পাচ্ছেন তিনি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, রোববার এই সংক্রান্ত একটি নোটিশ জারি করে তাকে কাজে পুর্নবহাল করার কথা জানানো হয়েছে উত্তরপ্রদেশ প্রশাসনের তরফ থেকে।

পুলিশ ম্যানুয়ালের ড্রেস কোড না মেনে দাড়ি রাখার জন্য গত ২০ অক্টোবর সাসপেন্ড করা হয় উত্তরপ্রদেশের বাগপত জেলার রামলালা থানার এসআই ইন্তেসার আলীকে।

এর আগে পুলিশ সুপার অভিষেক সিং তাকে তিনবার দাড়ি কেটে ফেলার জন্য নির্দেশ দিলেও রাজি হননি তিনি। এরপরই অনুমতি ছাড়া দাড়ি রাখার জেরে তাকে সাসপেন্ড করা হয়।

বর্তমানে নিজের আগের অবস্থান থেকে সরে এসে দাড়ি কাটতে রাজি হওয়ায় তাকে চাকরিতে পুনর্বহাল করা হচ্ছে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন।

এ বিষয়ে বাগপত জেলার পুলিশ সুপার অভিষেক সিং বলেন, ‘ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়ে দাড়ি রাখার জন্য বাগপত জেলার এসআই ইন্তেসার আলীকে সাসপেন্ড করা হয়েছিল। আজ তিনি আমার কাছে লিখিত আবেদন করেছেন যে, পুলিশ ম্যানুয়াল মেনে তিনি দাড়ি কাটতে রাজি আছেন। তাই সাসপেনশন প্রত্যাহার করে তাকে ফের কাজে যোগ দিতে বলা হয়েছে।’

পুলিশ কর্মকর্তা ইন্তেসার আলীর ভাষ্য, ‘২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে দাড়ি রাখার আবেদন জানিয়ে চিঠি দিয়েছিলাম। কিন্তু, এখনো তার জবাব পাওয়া যায়নি। গত ২৫ বছর ধরে উত্তরপ্রদেশ পুলিশে কাজ করছি। কিন্তু, এতদিন পর্যন্ত কেউ আমাকে দাড়ি রাখতে বাধা দেয়নি। কিন্তু, এখনই যত সমস্যা হচ্ছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *