দুর্গম চরে ফেলে যাওয়া বৃদ্ধকে উদ্ধার করে আইসোলেশনে ভর্তি

করোনাভাইরাসের উপসর্গ থাকায় কে বা কারা মানসিক ভারসাম্যহীন এক বৃদ্ধকে (৬৫) পাবনার বেড়া উপজেলার নতুনভারেঙ্গা ইউনিয়নের দুর্গম চর চরসাফুল্যা গ্রামে ফেলে রেখে যান। খবর পেয়ে সোমবার (২০ এপ্রিল) বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসিফ আনাম সিদ্দিকী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একটি চিকিৎসা দল নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে আইসোলেশনে ভর্তি করেছেন।

এলাকাবাসী ও উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার (১৮ এপ্রিল) দুপুরের পর যমুনা নদীর দুর্গম চর চরসাফুল্যা গ্রামে ওই বৃদ্ধকে ঘোরাফেরা করতে দেখা যায়। মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় তিনি চরবাসীকে তর পরিচয় দিতে পারেননি। এ ছাড়া তিনি কীভাবে ওই চরে এলেন তাও বলতে পারেননি। রোববার (১৯ এপ্রিল) ওই বৃদ্ধ হাঁটতে হাঁটতে গ্রামের এক ব্যক্তির বাড়ির কাছে গিয়ে পড়ে যান। স্থনীয় লোকজন ও ইউপি চেয়ারম্যানের কাছ থেকে খবর পেয়ে ইউএনও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে বলেন। বিকেলে ওই গ্রামে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কয়েকজন মাঠকর্মী গিয়ে ওই বৃদ্ধকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে আসেন।

পরে সোমবার ইউএনও আসিফ আনাম সিদ্দিকী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সরদার মো. মিলন মাহমুদসহ একটি মেডিকেল টিম নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। দুপুরের দিকে তারা ওই বৃদ্ধকে সেখান থেকে উদ্ধার করে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ইউনিটে নিয়ে ভর্তি করেন।

বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসিফ আনাম সিদ্দিকী বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই বৃদ্ধকে উদ্ধার করে আইসোলেশনে এনে ভর্তি করেছি। তাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তার শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য রাজশাহী পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

তিনি আরও বলেন, ওই বৃদ্ধ কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় তার পরিচয় বের করতে পারিনি। তবে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে মনে হয়েছে- কোনো নৌকা থেকে তাকে ওই নির্জন চরে রেখে যাওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *