মাঠের মধ্যেই হাতাহাতিতে জড়ালেন তেওটিয়া

সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ আর রাজস্থান রয়্যালসের মধ্যে খেলা হওয়া রোমাঞ্চকর ম্যাচে রাজস্থান্ রয়্যালসের দল ৫ উইকেটে দুর্দান্ত জয় হাসিল করেছে। এই ম্যাচে রাজস্থানের হয়ে রাহুল তেওটিয়া আর রিয়ান পরাগ জয়ের জন্য দুর্দান্ত পার্টনারশিপ গড়েন। কিন্তু ম্যাচের ২০তম ওভারে রাহুল তেওটিয়া এবং খলিল আহমেদের মধ্যে ঝামেলা তৈরি হয়ে যায়। আইপিএল ২০২০-তে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ আর রাজস্থান রয়্যালসের মধ্যে খেলা হওয়া ম্যাচের শেষ ওভারে হায়দ্রাবাদের খলিল আহমেদ আর রাহুল তেওটিয়ার মধ্যে উত্তপ্ত ঝামেলা হতে দেখা যায়।

আসলে ম্যাচের শেষ ওভারে রাজস্থানের জয়ের জন্য ৮ রানের দরকার ছিল, সেই সময় ওই ওভারে অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার খলিল আহমেদকে বল তুলে দেন। এরপরই ক্রিজে সেট হওয়া রাজস্থান রয়্যালসের ব্যাটসম্যান রাহুল তেওটিয়া আর হায়দ্রাবাদের বোলার খলিল আহমেদের মধ্যে তর্কাতর্কি হয়ে দেখা যায়। এটা দেখেই অধিনায়ক ওয়ার্নার দ্রুত মামলা মেটানোর চেষ্টায় পৌঁছে যান। ম্যাচ শেষ হওয়ার পরও দুই খেলোয়াড়ের মধ্যে তাপউত্তাপ দেখা যায়। কিন্তু শেষে দুই খেলোয়াড় স্পোর্টসম্যান স্পিরিট দেখিয়ে তর্কাতর্কি শেষ করেন এবং দুজনকে হাত মেলাতেও দেখা যায়।

সানরাইজার্সের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন। হায়দ্রাবাদ প্রথমে ব্যাট করে ১৫৯ রানের লক্ষ্য দেয়। যার জবাবে রান তাড়া করতে নামা রাজস্থানের দল শুরুতে নিজেদের গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যানদের হারিয়ে ফেলে। কিন্তু শেষে রাহুল তেওটিয়া আর রিয়ান পরাগ ইনিংসকে সামলান আর দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন।

এর মধ্যে রাহুল তেওটীয়া ২৮ বলে ৪৫ এবং রিয়ান পরাগ ২৬ বলে ৪২ রান করেন। এর সঙ্গেই রাজস্থানের দল ৫ উইকেটে এই ম্যাচ জেতে। রাহুল তেওটিয়াকে দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের জন্য ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত করা হয়। এই জয় রাজস্থানের জন্য জরুঈ ছিল, কারণ এই ফ্রেঞ্চাইজি পরপর চারটি ম্যাচে হারের মুখ দেখে আসছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *