করোনা নতুন ৩ উপসর্গের সন্ধান পেল, আপনার নেই তো এই সমস্যা গুলি?

মহামারি করোনার ভয়াল থাবায় কাঁপছে বিশ্ব। করোনা ভাইরাস নিয়ে চরম আতঙ্কিত আছে সবাই। কাদের এই হচ্ছে এই ভাইরাস, কোন কোন বস্তু থেকে এই ভাইরাস ছড়াচ্ছে, এই ভাইরাসের লক্ষন কি কি ? এই বিষয় গুলি নিয়ে আলোচনা হচ্ছে বেশি। জর এবং শুকনো কাশি দিয়ে এই রোগের উপসর্গ শুরু হচ্ছে। আস্তে আস্তে শ্বাস কষ্ট দেখা দেয়। করোনার এই উপসর্গ গুলো প্রকাশ পেতে ৫ দিন মত সময় লাগে। সাধারণ উপসর্গের সাথে আরও ৩ টি লক্ষন দেখা যাচ্ছে করোনা আক্রান্ত রোগীদের মাঝে। তবে এই ৩ টি লক্ষনকে হালকা উপসর্গ হিসাবে চিহ্নিত করেছে বিশেষজ্ঞরা। লক্ষন ৩ টি হল-ঃ

এক-ত্বক জ্বলা-ঃ যুক্তরাজ্যে অনেক করোনা আক্রান্ত রোগী বলছে তাদের শরীরের ত্বক জ্বলাপোড়া করছে। সেজন্য ডাক্তাররা মনে করছে এটা কভিড-১৯ এর আরেকটি লক্ষন। তবে স্বাস্থ সংস্থা এই লক্ষনটিকে এখনও পর্যবেক্ষণে রেখেছে। অফিশিয়াল ভাবে করোনার লক্ষন হিসাবে ঘোষণা দেননি। করোনা আক্রান্ত এক নারী বলেছে, আমার ত্বকে ইলেকট্রিক শকের মত অনুভতি হচ্ছে। এ বিষয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডা. ড্যানিয়েল গ্রিফিন বলেন, ‘স্নায়ুতন্ত্রের প্রতি অটো-ইমিউন প্রতিক্রিয়ার কারনে এমনটা অনুভূতি হতে পারে।’

দুই- ঘন ঘন টয়লেট যাওয়া-ঃ আচমকা ঘন ঘন টয়লেট যাওয়া এটাও করোনা আক্রান্তের হালকা উপসর্গ। নতুন করোনা আক্রান্ত অনেক রোগীর ক্ষেত্রে এই সমস্যাটি দেখা দিয়েছে। এটা নিয়ে মন্তব্য করেছেন ডা. ডায়ানা। তিনি বলেন, ‘পাতলা মল এবং ঘন ঘন টয়লেটে যাওয়া অনেক সময় করোনার প্রাথমিক উপসর্গ হতে পারে। অনেক রোগীর শুরুতে ডায়রিয়া ছিল, পরে করোনা টেস্ট করে পজেটিভ এসেছে।’

তিন-অণ্ডকোষে ব্যথা-ঃ কভিড-১৯ এর ৩য় লক্ষনটি হল টেস্টিকুলার ব্যথা বা অণ্ডকোষে ব্যথা।হার্ভার্ড মেডিকেলে অন্ডকোষে প্রচণ্ড ব্যথা নিয়ে ভর্তি হওয়া ব্যাক্তিকে টেস্ট করে দেখা গেছে তিনি করোনা পজেটিভ। তবে ডাক্তাররা তার অণ্ডকোষে কোন ধরনের সমস্যা দেখেননি। অণ্ডকোষে ব্যাথা অনুভূত হলেও সিটি স্ক্যান করে দেখা গেছে সেই ব্যাক্তির ফুসফুসে সমস্যা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *