মধ্যবিত্তদের জন্য সুখবরঃ একদিনে আবারো কমলো স্বর্ণের দাম

আবারও কমেছে সোনার দর। চলতি সপ্তাহে দুই দফা সোনার দরপতন দেখা গিয়েছে বাজারে। পূজার আগে এমন দরপতনের পর মধ্যবিত্তরা ছুটছেন স্বর্ণের দোকানে।

পূজা আসলে সোনা কেনার চাহিদা এমনিতেই বেড়ে যায় ভা’রতের বাজারে। অন্যান্য সময়ের তুলনায় বেশি পরিমানে সোনা ক্রয় করে থাকেন ক্রেতারা। করো’নার এই সময়ে গত কয়েক মাসে সোনার আকাশচুম্বী দাম থাকলেও সেটা ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে। ফলে পূজার মৌসুমে সোনা কিনতে ভীর বেড়েছে অলঙ্কারের দোকানগুলোতে।

গতকাল(৭ অক্টোবর) সারাদিনই সোনার এই দরপতন লক্ষ্য করা গিয়েছে। ফলে কলকাতার বাজারে এদিন ২২ ক্যারেটের

এক গ্রাম সোনা বিক্রি হয়েছে ৪ হাজার ৯৪৭ টাকায়। ১০ গ্রামের মূল্য দাড়িয়েছে ৪৯ হাজার ৪৭০ টাকা। গতকাল থেকে ১০ গ্রাম সোনার মূল্য কমেছে ৪৫০ টাকা।

এদিকে দিল্লির বাজারে এদিন সোনার দরপতন হয়েছে আরও বেশি। কলকাতার তুলনায় অবশ্য সবসময়ই মূল্য কম থাকে দিল্লির বাজারে। ২২ ক্যারেটের ১০ গ্রাম সোনা এদিন দিল্লিতে বিক্রি হয়েছে ৪৮ হাজার ৯০০ টাকায়। গতকালের চেয়ে এদিন দাম কমেছে প্রায় ৫০০ টাকা।

দিল্লির থেকেও বেশি এদিন দরপতন দেখা গিয়েছে কেরালার বাজারে। আজকের বাজারে কেরালায় ১ গ্রাম সোনা বিক্রি হয়েছে ৪ হাজার ৬৫০ টাকা। ১০ গ্রাম সোনা বিক্রি হয়েছে ৪৬ হাজার ৫০০ টাকায়। মেঙ্গালোর, মাইসোর এবং

বেঙ্গালোরের বাজারে এক গ্রাম সোনা হাতবদল হতে দেখা গিয়েছে ৪ হাজার ৭৩৮ টাকায়। যার ১০ গ্রামের মূল্য দাড়ায় ৪৭ হাজার ৩৮০ টাকা।

শুধু সোনালী ধাতবই নয় দরপতনের দিকে থাকতে দেখা গেছে রুপাও। ভা’রতের বাজারে আজ প্রতি গ্রাম রুপা বিক্রি হয়েছে ৬০.২০ টাকা। যার ১০ গ্রামের মূল্যে দাড়ায় ৬০২ টাকা।

প্রসঙ্গত, চলতি মাসে সোনার মূলত কমতে পারে এমন আভাস আগেই দিয়েছিলেন বাজার বিশ্লেষকরা। করো’না কাটিয়ে

বিশ্ব বাজার চাঙ্গা হবার পর থেকেই কমতে শুরু করেছে সোনার মূল্য। সেই ধারাবাহিকতায় ভা’রতের বাজারেও কমেছে এই ধাতবের দাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *