মিন্নিকে বড় সুখবর দিল তার আইনজীবী

বরগুনার আ’লোচিত রি-ফাত শরিফ হ-ত্যা মা’মলায় ফাঁ-সির আ’সামি রি-ফাত শরিফের স্ত্রী’ আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি খালাস চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছেন। আজ মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) মিন্নির পক্ষে তার আইনজীবী মাক্কিয়া ফাতেমা ইস’লাম হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই আবেদন করেন।

গত ৪ অক্টোবর হাইকোর্টে আইনজীবী জেডআই খান পান্নার কক্ষে আসেন মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর। এদিন মিন্নির সাক্ষর করা ওকালতনামা এবং মা’মলার রায়ের সইমোহরকৃত কপি সাথে নিয়ে যান মোজাম্মেল হোসেন।

৪ অক্টোবরই মিন্নি সহ মা’মলার ছয় মৃ-ত্যুদ-ণ্ডপ্রা-প্ত আ’সামির ডেথ রেফারে-ন্স পৌঁছায় হাইকোর্টে। নিয়ম অনুযায়ী ডেথ রেফা-রেন্স হাইকোর্টে পৌছানোর সাত দিনের মধ্যে আপিল করার সুযোগ থাকায় সেদিনই সকল নিয়ম মেনে মিন্নির খালাস চেয়ে আবেদন করা হয়।উল্লেখ্য, গত ৩০ সেপ্টেম্বর চা-ঞ্চল্য-কর এই হ-ত্যা মা’মলার রায়ে বর-গু-না জে’লা দায়রা জজ আ’দালতের বিচারক

মো. আছাদুজ্জামান মিন্নি সহ ছয় জনের ফাঁ-সির আদেশ দেন। এছাড়া চার জনকে খালাস প্রদান করা হয়েছিল। রায় ঘো-ষণার সময় মিন্নি জামিনে থাকলেও এরপরই তাকে গ্রে-ফতার করে বর-গুনা জে’লা কারাগারের ক-ন্ডেম সেলে রাখা হয়েছে।তবে এই রায়ে স-ন্তুষ্ট ছিলেন না মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর।

রায়ের পর অসন্তোষ প্রকাশ করে তিনি জানিয়েছিলেন মিন্নির প্রতি আ’দালত অবিচার করেছে। তার ভাষ্য, আম’রা আইনের প্রতি শ্র-দ্ধাশীল ছিলাম। কিন্তু মিন্নির প্রতি অবিচার করা হয়েছে। আম’রা উচ্চ আ’দালতে যাব। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী আজ (৬ অক্টোবর) উচ্চ আদলতে মিন্নির পক্ষে আপিল করেছেন তার আইনজীবী।আ’লোচিত এই মা’মলায় মিন্নি সহ ফাঁ’সির দ’ণ্ডপ্রাপ্ত আ’সামিরা হলেন আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি (১৯), আল

কাইয়ুম ওরফে রাব্বি আকন (২১), মোহাইমিনুল ইস’লাম সিফাত ৯১৯), রেজোয়ান আলি খান হৃদয় ওরফে টিকট’ক হৃদয় (২২), মো. হাসান (১৯), রাকিবুল হাসান ওরফে রিফাত ফরাজি (২৩)।এছাড়া একই মা’মলায় আরও ১৪ আ’সামি অ’প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়াতে তাদের বিচারকার্য এখনও চলমান রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *