করোনায় আক্রান্ত এক গার্মেন্টস কর্মীতেই লক্ষ্মীপুর জেলার সর্বনাশ!

এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে লক্ষ্মীপুরের বাড়িতে ফেরেন এক গার্মেন্টস কর্মী। সর্দি-জ্বর ও কাশি কিছুই নেই, শুধু অল্প শরীরব্যথা নিয়ে দুইদিন পর নিজেই আসেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। সেখানে সন্দেহবশত তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। অথচ সেই মানুষটির সংস্পর্শে এসে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে এখন কারোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৩, এর মধ্যে ওই গার্মেন্টস কর্মীর পরিবারের ৮ সদস্যও রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটে অবস্থিত বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) নতুন ১১১ নমুনা পরীক্ষায় আরও ১৯ জনকে করোনা পজেটিভ পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে লক্ষ্মীপুরের ১৭ জন, ১ জন চট্টগ্রামের ও অপরজন ফেনী জেলার। এ নিয়ে লক্ষ্মীপুরে মোট করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হলো ১৯। এর আগে ১২ এপ্রিল লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে ১ জন এবং রামগতিতে ১ জন রোগীর দেহে করোনা শনাক্ত হয়।

লক্ষ্মীপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুল গাফ্ফার বলেন, ‘ঢাকায় এক পোশাক কারখানায় কাজ করেন এমন একজন পোশাক শ্রমিক কিছুদিন আগে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে ফেরেন। গত শনিবার চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটে অবস্থিত বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস হাসপাতালে তার নমুনা পরীক্ষার ফল ‘পজিটিভ’ আসে। এরপর ওইদিন রাতেই পুলিশের সহযোগিতায় অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে লক্ষ্মীপুর থেকে ঢাকায় কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালে পাঠানো হয়।’

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *