চুমু দেয়ার অভিযোগ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করলেন সাবেক মডেল অ্যামি ডরিস। ট্রাম্প তাকে একবার জোর করে চুমু খেয়েছিলেন বলে দাবি করেছেন তিনি।

এক বছর আগে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ডরিস জানান, ‘১৯৯৭ সালে ট্রাম্প আমাকে জোর করে চুম্বন করেন। ঘটনাটা ঘটেছিল নিউ ইয়র্কে ইউএস ওপেন টেনিস চ্যাম্পিয়নশিপ চলার সময় ভিআইপি বক্সে।’

ডরিস বলেছেন, ‘ট্রাম্প আমায় চেপে ধরেন। তারপর জোর করে তার জিভ আমার মুখের ভেতরে ঢুকিয়ে দেন। ট্রাম্প এত জোরে চেপে ধরেছিলেন যে আমি ছাড়াতে পারছিলাম না। আমি বারবার তাকে থামতে বলেছিলাম, কিন্তু তিনি থামেননি।’

ডরিসের দাবি, ‘আমি সে সময় অনেককে এই ঘটনার কথা বলেছিলাম। তাদেরকে জিজ্ঞাসা করে দেখতে পারেন।’ যখন এই ঘটনা ঘটেছিল, তখন তার বয়স ছিল ২৪ বছর। ট্রাম্পের ৫১। তিনি তখন দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন।

গার্ডিয়ানকে এক বছর আগে এই সাক্ষাৎকার দেন ডরিস। তার অনুরোধ ছিল, তখন তা যেন ছাপা না হয়। তিনি বলেছেন, ট্রাম্প এই কাজ করার পরেও ছাড়া পেয়ে গেছেন দেখে আমার খুব খারাপ লাগে।

এদিকে ট্রাম্পের আইনজীবী গার্ডিয়ানকে জানিয়েছেন, ডরিস যা বলছেন তা একেবারেই বিশ্বাসযোগ্য নয়। এরকম ঘটনা ঘটলে তার তো সাক্ষী থাকবে।

আগামী ৩ নভেম্বর প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তার আগে এই ধরনের অভিযোগ পুরোপুরি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

Author: Rijvi Ahmed

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *