ব্যারিস্টার সুমনকে নিয়ে যা বললেন কাজী সালাউদ্দিন

বাফুফে নির্বাচনের খুব বেশিদিন বাকি নেই। দীর্ঘ এক যুগ ধরে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছেন সাবেক ফুটবলার কাজী মোঃ সালাউদ্দিন। এবারও এই পদের জন্য লড়বেন তিনি।

তবে বাংলাদেশ ফুটবলের সমর্থকরা মেনে নিতে পারছেন না সালাউদ্দিনকে। এনিয়ে বেশ কয়েকবার মানববন্ধন হয়েছে, হচ্ছে। আন্দোলন হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও।

এই আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন সময়ের আলোচিত ব্যক্তি ‘ব্যারিস্টার সাইদুল হক সুমন’।

তার নেতৃত্বে ‘আমরাও একদিন ফুটবল বিশ্বের শক্তিশালী খেলুড়ে দেশ হতে চাই’ শীর্ষক এই মানববন্ধন আয়োজন করে ‘প্রজন্ম, ফুটবল যাদের চেতনায় ও অস্তিত্বে’।

ব্যারিস্টার সুমন আয়োজিত এই মানববন্ধন টিভি পর্দায় দেখেছেন কাজী সালাউদ্দিন।

সম্প্রতি দেয়া সাক্ষাৎকারে বাফুফে প্রধানকে ওই মানববন্ধন নিয়ে জিজ্ঞেস করা করা হলে তিনি উল্টো প্রশ্ন ছুড়ে দেন, ব্যারিস্টার সুমন কে?

‘টিভিতে দেখলাম দাবি উঠেছে, সালাউদ্দিনকে পদত্যাগ করতে হবে। নির্বাচনের বাকি মাত্র কটা দিন।

আপনি কেন নির্বাচন করতে আসছেন না? আমি তো নির্বাচিত হয়েই এখানে এসেছি।

আমি তো আমার নির্বাচন করছি। আপনি নির্বাচনে না এসে আমাকে পদত্যাগ করতে বলছেন। আপনি কে, আপনার যোগ্যতা কী?’

এ নিয়ে কাজী সালাউদ্দিন আরও বলেন, ‘যদি এমন হতো আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আপনার (ব্যারিস্টার সুমন) সাংগঠনিক কোনো বড় অবদান আছে তাও মেনে নিতাম।

গণমাধ্যমে এসে গালাগালি করলেন। কিন্তু গণমাধ্যমও তার কথা তুলে ধরছে, যা ভিত্তিহীন। আজকে আমি যদি অর্থমন্ত্রীকে নিয়ে সমালোচনা করি।

তাহলে দেখতে হবে অর্থনীতিতে আমার জ্ঞান কতটুকু। যারা আমাকে গালি দিচ্ছে, বলছে পদত্যাগ করতে তাদের যোগ্যতা কী? ফুটবলে আমার ৫০ বছরের অভিজ্ঞতা। খেলোয়াড়, কোচ ও সংগঠক হিসেবে কাজ করছি।’

গত ১৪ আগস্ট ‘প্রজন্ম, ফুটবল যাদের চেতনায় ও অস্তিত্বে’ নামক মানববন্ধনে কাজী সালাউদ্দিনের সমালোচনা করে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘সালাউদ্দিনের দায়িত্বকালে বাংলাদেশের ফুটবলের অনেক অবনতি হয়েছে।

র‍্যাঙ্কিংয়ে ৭৭ ধাপ নিচে নেমেছে। ফেডারেশনে ফুটবলের উন্নয়ন নিয়ে কাজ হয় না, সেখানে দুর্নীতির মহোৎসব চলে, নিজেদের মধ্যে ভাগ বাটোয়ারা হয়। এখন সময় এসেছে- এই অবস্থা থেকে উত্তরণের।’

সম্প্রতি সময়ে দেখা গেছে সিলেটের চুনারুঘাট উপজেলায় ‘ব্যারিস্টার সুমন ফুটবল একাডেমি’ নামে একটি ক্লাব গঠন করেছেন তিনি।

আগামী ৩ অক্টোবর রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে অনুষ্ঠিত হবে বাফুফের নির্বাচন। দুপুর ২টা থেকে বেলা ৬টা পর্যন্ত চলবে ভোটগ্রহণ।

১৩৯ জন কাউন্সিলর একজন করে সভাপতি ও সিনিয়র সহ-সভাপতি, চারজন সহ-সভাপতি এবং ১৫ জন সদস্যকে ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করবেন।

Author: Rijvi Ahmed

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *