দিশার মৃ’ত্যুর মাত্র ৫ দিনের ব্যবধানে সুশান্ত’র মৃত্যু, বাড়িতে থাকা কাগজপত্র থেকে যা জানা গেল

গত ৮ জুন ১৪ তলা থেকে ঝাঁ’প দিয়ে আত্মহ’ত্যা করলেন সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ান। দিশার মৃ’ত্যুর মাত্র ৫ দিনের ব্যবধানে সুশান্ত’র মৃত্যু হতবাক করে দিলো উপমহাদেশকে।গোটা দেশ যখন করোনা নিয়ে দু’শ্চিন্তায়, হঠাতই বলিউডের ওপরে যেন আকাশ ভে’ঙে পড়ল। আত্মহ’ত্যা করলেন বলিউডের নতুন প্রজন্মের অন্যতম জনপ্রিয় মুখ সুশান্ত সিং রাজপুত। রবিবার মুম্বাইয়ের বাড়ি থেকেই উ’দ্ধার হয় তাঁর ঝুল’ন্ত লা’শ। বাড়িতে থাকা কাগজপত্র থেকে জানা যাচ্ছে, বেশ কিছুদিন ধরেই ডিপ্রেশনে ভুগছিলেন তিনি।

অন্যদিকে, মুম্বাইয়ের মালাডের এক বহুতলের ১৪ তলা থেকে ঝাঁ’প দিয়ে আত্মহ’ত্যা করেছিলেন দিশা। প্রেমিক রোহন রাই এবং বন্ধুদের সঙ্গে ডিনারের পর আচমকাই বড় কাচের জানলার কাছে চলে যান দিশা। কিছু বুঝে ওঠার আগে সেখান থেকে ঝাঁ’প দিয়ে আত্মহ’ত্যা করেন তিনি। তবে কী কারণে আত্মহ’ত্যা করলেন সেলিব্রিটি ম্যানেজার, তা নিয়ে দ্বি’ধায় পড়ে যায় পুলিশ। তদ’ন্ত শুরু করা হয়েছে। তবে লকডাউনের সময় থেকে ক্রমশ ডিপ্রেশনে ভুগছিলেন দিশা। মাঝে মধ্যেই অন্য রকমের ব্যবহার করতেন তিনি। কী কারণে তাঁর ব্যবহারে আচমকা পরিবর্তন আসে, তা নিয়েও পুলিশ খোঁ’জ শুরু করেছে।

এদিকে সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহ’ত্যার ঘটনায় গোটা উপমহাদেশ শোকে স্ত’ব্ধ হয়ে গেছে। ধোনির বায়োপিক থেকে শুরু বেশ কিছু সুপারহিট চলচ্চিত্রের নায়ক সুশান্ত সিং রাজপুত। ১৯৮৬ সালের ২১ জানুয়ারি পটনায় জন্মগ্রহণ করেন সুশান্ত সিংহ রাজপুত। পরবর্তীকালে দিল্লিতে চলে আসে তাঁর পরিবার। দিল্লি কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়েও ভর্তি হন। কিন্তু সেইসময় থেকেই থিয়েটারের দিকে ঝোঁ’কেন তিনি। নাচও শেখেন। তার জন্য পড়াশোনা শেষ করতে পারেননি।

অভিনয়ের তাগিদ থেকেই শেষ মেশ মুম্বইয়ে চলে আসেন সুশান্ত। সেখানে ২০০৮ সালে প্রথম একতা কপূরের প্রযোজনায় ‘কিস দেশ মে হ্যাঁ মেরা দিল’ সিরিয়ালে অভিনয় করার সুযোগ পান। সিরিয়ালে অল্প দিনের মধ্যেই তাঁর চরিত্রটির মৃ’ত্যু হয়।তবে সেখান থেকেই একতা কপূরের সঙ্গে বন্ধুত্ব হয়ে যায় তাঁর। সেই সূত্রেই ২০০৯ সালে ‘পবিত্র রিস্তা’ সিরিয়ালে মুখ্য চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পান তিনি। তার পর আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *