বিরাট কোহলি-আনুশকার বিবাহ বিচ্ছেদ!

বিরাট-আনুশকার বিবাহ বিচ্ছেদ! সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ট্রেন্ডিংয়ে শীর্ষে #VirushkaDivorce! ব্যাপারটা কী? বিরাট কোহলি আর আনুশকা শর্মার মধ্যে রাতারাতি এমন কী ঘটল যে নেট দুনিয়া জুড়ে বিচ্ছেদের জল্পনা মাথাচাড়া দিয়ে উঠল? লকডাউনের মধ্যে বিরুষ্কা কীভাবে দিন কাটাচ্ছেন, তা নেটদুনিয়ার বাসিন্দাদের অজানা নয়। গৃহবন্দী অবস্থায় যে তাদের কেমিস্ট্রি আরও জমে উঠেছে, তা তাদের বিভিন্ন ছবি আর ভিডিও থেকেই স্পষ্ট। ভিডিও কলিংয়েও দারুণ অ্যাকটিভ ভারত অধিনায়ক। কখনো চাহাল তো কখনো অশ্বিন, সুনীল ছেত্রীদের সঙ্গে জমিয়ে আড্ডা দিয়েছেন। আর প্রতি ক্ষেত্রেই উঠে এসেছে আনুশকা প্রসঙ্গ। এককথায়, তাদের দাম্পত্য জীবন যে আপাতত কলহ-বর্জিত তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু এরই মধ্যে হঠাৎ বিরুষ্কা ডিভোর্স হ্যাশট্যাগটি ট্রেন্ডিং হয়ে যাওয়ায় বেশ অবাকই হয়েছেন নেটিজেনদের একাংশ।

সম্প্রতি ‘পাতাল লোক’ দেখার পর উত্তর প্রদেশের বিজেপি বিধায়ক নন্দকিশোর গুরজার মন্তব্য করেছিলেন, ‘অনুষ্কাকে ডিভোর্স দিক বিরাট কোহলি।’ সেই পরিপ্রেক্ষিতেই কী এমনটা হল? না, আসলে মিস্টার অ্যান্ড মিসেস কোহলিকে নিয়ে একটি পুরোনো আর্টিকেল হঠাৎই ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল। তারপরই নাকি ট্রেন্ডিংয়ে উঠে আসে এই হ্যাশট্যাগটি। তবে এমন গুজবে কান দিতে নারাজ নেটিজেনরাও। কারণ তারা ভালোই বোঝেন যে রাতারাতি এমন ঘটনা ঘটতেই পারে না। বলা ভালো, ‘ফেভারিট জুটি’র প্রতি তাদের আস্থা অনেকখানি। তাই অনেকেই এই ভুয়া খবরের বিরুদ্ধে টুইটারে সরব হন। অনেকেই নানা মিম পোস্ট করে সেলেব দম্পতির পাশে দাঁড়ান।

বর্তমানে ভুয়া খবরের কারণে অনেক সময়ই অনেক হ্যাশট্যাগ ট্রেন্ডিংয়ে পরিণত হচ্ছে। দিন কয়েক আগেই যেমন ধোনির অবসর নিয়ে চর্চা ছিল তুঙ্গে। মেজাজ হারিয়ে শেষমেশ সেই জল্পনায় জল ঢালেন খোদ ধোনিপত্নী সাক্ষী। তবে এবার হয়তো বিরুষ্কার আলাদা করে জল্পনা দূর করার প্রয়োজন হবে না।

Author: Online Editor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *