এবার বিক্রি হচ্ছে করো’না নেগেটিভ সার্টিফিকেট

করো’নাভাই’রাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগে আ’ক্রান্ত নন ম’র্মে ‘করো’না নেগেটিভ’ সার্টিফিকেট বাণিজ্য চলছে রাজধানীর অদূরে সাভা’র উপজে’লায়। এ ব্যবসায় জ’ড়িত থাকার অ’ভিযোগে দুই ব্যক্তিকে আ’ট’ক করেছে পু’লিশ। তাদের একজনের নাম সাইদ। আ’ট’ক দুজনের কাছ থেকে উ’দ্ধার করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ সার্টিফিকেট।

সাভা’র মডেল থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) এসএম সায়েদ জানান, চাকরি নিরাপত্তা নিয়ে বিভিন্ন তৈরি পোশাক কারখানার কর্মক’র্তা ও শ্রমিকদের আতঙ্ককে পুঁজি করে বেশ কিছুদিন ধরেই জালিয়াতির এই ব্যবসা করে আসছিল সংঘবদ্ধ একটি চক্র।

ওসি জানান, সম্প্রতি দেনিটেক্স নামের একটি তৈরি পোশাক কারখানা কর্তৃপক্ষের কাছে এ ধরনের বেশ কিছু সার্টিফিকেট আসে। যেটি দেখে তাদের স’ন্দেহ হয়। পরে বিষয়টি নিয়ে ত’দন্তে নামে তারা। কিন্তু উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের রেজিস্ট্রারে সার্টিফিকেটধারী কারও নাম তারা খুঁজে পায়নি। পরে কৌশল অবলম্বন করে দেনিটেক্স কর্তৃপক্ষ সার্টিফিকেটগুলো যে ঠিকানা থেকে পাঠানো হয়েছে, সেখানকার এক ব্যক্তিকে ডেকে আনেন। পরে তাকে আ’ট’ক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে জানা যায়, ওই ব্যক্তি পশ্চিমবাংলা এলাকার একটি ফার্মেসির মালিক। তার নাম সাইদ।

ওসি আরও জানান, সাইদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে আরেকজনকে আ’ট’ক করা হয়েছে। তবে ত’দন্তের স্বার্থে তার নাম প্রকাশ করা হচ্ছে না।

সাভা’র উপজে’লা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মক’র্তা ডাক্তার সায়েমুল হুদা বলেন, ‘করো’নাভাই’রাসের প্রাদুর্ভাব পরিস্থিতির মধ্যেও সার্টিফিকে’টের ব্যবসার মতো অ’নৈতিক কার্যকলাপে প্রতারকরা যু’ক্ত হবে এটা কল্পনাও করিনি। পু’লিশ তাদের আ’ট’ক করেছে। আইনানুগ ব্যবস্থায় তাদের শা’স্তি নিশ্চিত করা হোক, এটাই চাই।’

সাভা’র মডেল থা’না জানিয়েছে, আ’ট’ককৃতদের নিয়ে অ’ভিযান অব্যাহত রয়েছে। অ’ভিযান শেষে বিস্তারিত জানানো হবে। পু’লিশ আপাতত আ’সামিদের গণমাধ্যমের সামনে উপস্থাপন করেনি।

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *